1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন

অসুস্থ আওয়ামীলীগ নেতার চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন শামীম ওসমান

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৫৭৪

নারায়ণগঞ্জের বন্দরের সাবেক কদমরসুল পৌর আওয়ামীলীগের সমাজ কল্যান সম্পাদক শাহনেয়াজ রাহাত মিয়া। স্থানীয় আওয়ামীলীগের একজন পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগি নেতা হিসেবে পরিচিত। দু:সময়ে বন্দর আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে সক্রীয় কয়েকজন নেতার মধ্যে রাহাত মিয়া অন্যতম। দলের জন্য তার অবদান একবাক্যে শিকার করে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। রাজনীতি করতে গিয়ে পৈত্রিক সম্পদ খোয়াতে হয়েছে তাকে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ডের ইস্পাহানীতে স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে তার সংসার। ইট-বালুর ব্যবসা আর বাড়ি ভাড়াই ছিল তার আয়ের উৎস। তবে রাজনীতির কারণে ব্যবসার দিকে মনোনিবেশন ছিল না ঠিকমত। এরমধ্যে ২০১৭ সালের ৮ আগস্ট সন্ধ্যায় স্ট্রোক করি। চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে আগের মতো আর ব্যবসায় সময় দিতে পারেননি। এক সময় সেই ব্যবসাটা শেষ হয়ে যায়। বাড়ি ভাড়া দিয়েই চলছিল তার সংসার। ব্যবসা বন্ধ আর আর্থিক সংকট দু:শ্চিন্তায় ফেলে দেয় রাহাত মিয়াকে। এরই মধ্যে ২৯ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তার শ্বাস নিতে কস্ট হচ্ছিল। দ্রুত তাকে স্থানীয় বন্দর জেনারেল হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অক্সিজেন সাপোর্ট দেয়ার পর কিছুটা সুস্থতা বোধ করেন। কিন্তু পরদিন আবারো তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এসময় আর্থিক সংকটের কথা চিন্তা করে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন রাহাত মিয়া। খবর পেয়ে পাশে দাঁড়ান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান। এবং তার চিকিৎসার পুরো দায়িত্ব নেন তিনি।
রাহাত মিয়া বলেন, শামীম ওসমান ভাই আমাকে বলেন তুমি কোথায় চিকিৎসা করাতে চাও, যেখানে তোমার মনে চায় সেখানে দ্রুত ভর্তি হও, টাকা পয়সা যা লাগে আমি দেখবো। পরে আমাকে সোহরওয়ার্দী হাসপাতালের হৃদরোগ ইন্সটিউটের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। ১৪ অক্টোবর আমার এনজিওগ্রাম (ডা. জিল্লুর রহমান) করা হয়। এতে আমার হার্টে দুইটা ব্লোক ধরা পড়ে। চিকিৎসক জানায় আমার আইপাস করতে হবে। কিন্তু তাদের ওখানে মেশিন নস্ট। তখন শামীম ভাই হাসপাতালের পরিচালকের সঙ্গে কথা বলেন। কিন্তু আইপাসের মেশিন ঠিক না হওয়ায় আমার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। শ্বাস-কস্ট ও বুকের ব্যাথা বেড়ে যায়। পরে ১৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় আমার স্ত্রী বিষয়টি শামীম ভাইকে জানায়। তখন শামীম ভাই হাসপাতালে ফোন দিয়ে আমার সকল কাগজপত্র রেডি করে দিতে বলে। এবং পরদিন ১৯ অক্টোবর সকালে শামীম ভাই নিজে ল্যাবএইড হাসপাতালে আসেন। এবং তার পিএস হাফিজুর রহমান মান্নানকে দিয়ে আমাকে ভর্তি করান। দুইদিন অবজারভেশনে রাখার পর বুধবার বেলা আড়াইটায় আমাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। অপরারেশন রুমেও শামীম ভাই ডাক্তারকে ফোন দিয়েছেন। পরে ডাক্তার আমাকে বলেছে, শামীম ভাই তাকে বলেছে সবচেয়ে দামী রিং যেনো লাগানো হয়। ও (রোগী) আমার কর্মী। কর্মীর জন্য আমার যা করতে হয় আমি করবো। তখন ডাক্তার বলে, শামীম ওসমান সাহেব এতো ভালো লোক। পরে জ্ঞান ফেরার পর আমি জানতে পেরেছি শামীম ভাই টাইম-টু টাইম আমার ছেলের কাছে ফোন করে আমার খোঁজ খবর নিয়েছেন। আল্লাহর রহমতে এবং শামীম ভাইয়ের কারণে আমি আজ (বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর) সুস্থ। মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। আমার নেতা শামীম ভাইয়ের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। বর্তমানে রাহাত মিয়া ল্যাবএইডের ৩০৩ নাম্বার রুমের বেড নাম্বার ২০, সিসিইউ-২তে চিকিৎসাধীন।
রাহাত মিয়ার ছেলে ২৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আবির আহম্মেদ লিজন জানান, আজকে (বৃহস্পতিবার) আব্বুর সঙ্গে কথা বলেছি সে ভালো আছে। কথা বলতে পারে। মাননীয় এমপি শামীম ওসমান আঙ্কেল বলেছেন, যতদিন প্রয়োজন তিনি (রাহাত মিয়া) হাসপাতালে থাকবে। সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়ার পরই যাবে। টাকা-পয়সার জন্য কোন চিন্তা করতে হবে না এটা আমি দেখবো। লিজন বলেন, মাননীয় এমপি মহোদয় পাশে না দাঁড়ালে আব্বু এতো দ্রুত সুস্থ হতো না। আমরা এমপি মহোদয়ের কাছে কৃতজ্ঞ।
উল্লেখ করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন অসহায়, দু:স্থ ও দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে নারায়ণগঞ্জে মানবিক পরিবার হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন ওসমান পরিবার।

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart