1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন

করোনা আক্রান্ত নাসিকের স্বাস্থ্য কর্মকর্তার পরিবার লাঞ্ছিত

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৮ জুন, ২০২০
  • ৮২৮
মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীর সাথে সুব্রত

 মরণঘাতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় সিটি কর্পোরেশনের আবাসিক ভবনে নিজের কেনা ফ্ল্যাট থেকে বিতাড়িত হয়েছেন খোদ সিটি কর্পোরেশনেরই স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা মোরশেদা আক্তার। কয়েকদিন পর তিনি পুরোপুরি সুস্থ্য হলেও সেই ফ্ল্যাটে প্রবেশ করতে পারেননি ফ্ল্যাট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুব্রত কুমার সাহার বাঁধার কারণে। উল্টো মোরশেদা আক্তারের স্বামী মহানগর আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতা হুমায়ন কবীর মৃধাকে তার ছেলেদের সামনেই রীতিমত লাঞ্ছিত করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশের সহযোগিতায় ফ্ল্যাটে উঠেছে মোরশেদা আক্তারের পরিবার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন অমানবিক ঘটনাটি প্রকাশের পর সমালোচনার ঝড় উঠেছে নগরজুড়ে। তোলপাড়া চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
এদিকে অভিযোগের তদন্তে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ভবনের সিকিউরিটি গার্ড বিষয়টি স্বীকার করে জানিয়েছে, সুব্রত সাহার নির্দেশেই তাদের প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।
ভুক্তভোগি হুমায়ন কবীর মৃধা জানান, আমার স্ত্রী তার চাকুরীর টাকায় সিটি কর্পোরেশনের পদ্ম প্লাজায় কয়েক বছর আগে কিস্তিতে একটি ফ্ল্যাট কিনেন। সেখানেই ৩ ছেলে ও স্ত্রী নিয়ে বসবাস করছি আমরা। গত ২২ মে করোনা আক্রান্ত হন সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা আমার স্ত্রী মোরশেদা বেগম। সিটি কর্পোরেশন কতৃক নির্মিত শহরের টানবাজারস্থ পদ্ম প্লাজার ফ্ল্যাট কমিটি আমাদের নিজ ফ্ল্যাট থেকে চলে যেতে বাধ্য করে। শুধু তাই নয়, ফ্ল্যাটে রাখা জামাকাপড়, ছেলেদের বই খাতা কিছুই নিতে দেয়নি ফ্ল্যাট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুব্রত সাহা ও তার নিয়োজিত লোকজন। উপায়ন্ত না পেয়ে আমরা নিজ বাড়ী নদীর ওইপাড়ে বন্দরে চলে যাই। এরইমধ্যে আমার স্ত্রীর করোনা নেগেটিভ হয়। সুস্থ হওয়ার পর গত রোববার (৭ জুন) আমার ছেলে ফ্ল্যাটে যায় বই আনার জন্য। কিন্তু ফ্ল্যাট মালিক সমিতির নেতা সুব্রত আমার ছেলেকে ফ্ল্যাটে উঠতে বাধা দেয়। আজ (সোমবার) আমি ও আমার ছেলেরা ফ্ল্যাট থেকে কাপড়-চোপড় ও ছেলেদের বই খাতা আনতে গেলে কয়েকজন লোক আমাকে ফ্ল্যাটে প্রবেশে বাধা দেয় এবং এক পর্যায়ে আমার সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু করে। পরে আমার বড় ছেলে মারুফ কবীর মৃধা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে।
হুমায়ন কবীর বলেন, যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন করোনা রোগীদের সঙ্গে সহানুভূতি সহকারে আচরণ করার জন্য সেখানে আমার স্ত্রীর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পরও আমার নবম শ্রেণীতে অধ্যয়ণরত ছেলেকে বাসার বাইরে বের করে দেয়।
হুমায়ন কবীর অভিযোগ করেন, শহরের টানবাজারস্থ পদ্ম প্লাজা-৩ নামের ওই বহুতল আবাসিক ভবনের ফ্ল্যাট মালিকরা শুরু থেকেই সুব্রত সাহার কাছে জিম্মি। এই বহুতল ভবনে সিটি কর্পোরেশনের কমপক্ষে ৬ থেকে ৭ জন কর্মকর্তা ফ্ল্যাট কিনে বসবাস করলেও তারাও সুব্রত সাহার কাছে জিম্মি।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সুব্রত কুমার সাহার মোবাইলে ফোন দিলে তিনি ঘটনাটি মিথ্যা ও বানোয়াট দাবী করেন। পরমুহুর্তেই সুব্রত সাহার মোবাইলেই জনৈক অজয় পোদ্দার নিজেকে একটি জাতীয় টিভি চ্যানেলের কমকর্তা পরিচয় দিয়ে বলেন, আমি সুব্রত সাহার বন্ধু এবং এই ভবনের বাসিন্দা। তিনি দাবী করেন, মোরশেদা আক্তার করোনা নেগেটিভ হয়েছেন বিষয়টি আমরা কেউই জানতাম না। আর উনার ছেলেকে বাধা দেয়ার ঘটনাটিও মিথ্যা। কারণ ওই সময় সুব্রত নিজ ফ্ল্যাটেই ছিল না। উল্টো সুব্রতকে ফোন করে মোরশেদা আক্তার ও তার স্বামী গালাগাল করেছেন, তার ছেলে ফেসবুকে উল্টোপাল্টা পোষ্ট দিচ্ছে। আমিও জাতীয় মিডিয়ায় কাজ করি, ১০টা বন্ধুবান্ধব আছে, মামলা দিলে কি তার জন্য ভালো হবে?
এ ব্যাপারে হুমায়ুন কবিরের ছেলের দায়ের করা অভিযোগের তদন্তে যাওয়া সদর মডেল থানার এসআই শামীম জানান, আমি সেখানে গিয়েছিলাম। ভবনের সিকিউরিটি জানিয়েছে, ফ্ল্যাট মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক সুব্রত সাহা তাকে নিষেধ করেছে যেন মোরশেদা আক্তারের পরিবারের কেউ ভবনে প্রবেশ করতে না পারে। পরে আমি তাদের ফ্ল্যাটে উঠিয়ে দিয়েছি।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart