1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২৭ অপরাহ্ন

ক্ষুধা-ক্লান্তিতে পুনর্মিলনীস্থল ছাড়ছেন ছাত্রলীগকর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১০৭

হালকা নাস্তা করে হল থেকে বেরিয়েছেন সকালে। পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মিলিত হন মিছিলে, সেই মিছিলে স্লোগান ধরে ঢোকেন আয়োজনস্থল ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। ভেতরে ঢুকতে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়ানোর পর আয়োজনস্থলে বসার জায়গাও হচ্ছিল না। এরমধ্যে পানি ছাড়া কিছু খেতেও পারছিলেন না। এমন অবস্থায় ক্ষুধা-ক্লান্তিতে পুনর্মিলনীস্থল ছাড়তে দেখা গেছে ছাত্রলীগের কিছু কর্মীকে।

শনিবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে পুনর্মিলনীস্থল থেকে কয়েকজন কর্মীকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ত্যাগ করতে দেখা যায়।

দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অগ্রভাগের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে বিকেল ৩টার দিকে। এ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতাকর্মীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভেতরে ঢুকতে শুরু করেন। উদ্যানে প্রবেশ বন্ধ হয় দুপুর দেড়টায়।

ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কয়েকজন কর্মী জানান, প্রবেশের প্রায় দেড় ঘণ্টা পর অনুষ্ঠান শুরু হয় বিকেল ৩টায়। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে ভেতরে প্রবেশ করে বসার জায়গা না পেয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়েন কর্মীরা। এতে ক্লান্ত ও ক্ষুধার্ত হয়ে পড়লে অনেকে উদ্যান থেকে বের হয়ে আসতে শুরু করেন।

অনুষ্ঠান থেকে বেরিয়ে যাওয়া ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের এক কর্মী বাংলা২৪ বিডি নিউজকে বলেন, ‘সকাল ৮টার দিকে হল থেকে হালকা নাস্তা করে বের হয়েছি। বের হওয়ার পর উদ্যান গেইটে ধাক্কাধাক্কি ও স্লোগান দিতে দিতে ক্লান্ত হয়ে যাই। ভেতরে বসার ভালো জায়গা নেই। পানি ছাড়া অন্য কিছু খাওয়াও যায় না। সব মিলিয়ে তীব্র ক্ষুধায় উদ্যানের বাউন্ডারি টপকে এসেছি।’

এদিকে বেলা আড়াইটার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজনস্থলে আসেন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক অভিভাবক, আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তখন স্লোগান দিয়ে তাকে স্বাগত জানান। উত্তরীয় পরিয়ে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শেখ হাসিনাকে বরণ করে নেন ছাত্রলীগের নেতারা। পরে জাতীয় সংগীত ও দলীয় সংগীতের মাধ্যমে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করা হয়। এরপর বাজানো হয় দেশাত্মবোধক গান।

এর আগে, সকাল থেকে নানা রঙের ব্যানার-ফেস্টুন হাতে মিছিল সহকারে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ‘জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু’, ‘শুভ শুভ শুভ দিন-ছাত্রলীগের জন্মদিন’ স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে গোটা উদ্যান। দুপুর হতেই পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান রূপ নেয় ছাত্রলীগের সাবেক-বর্তমান নেতাকর্মীদের মিলনমেলায়।

পুনর্মিলনীতে ছাত্রলীগ থেকে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে যাওয়া নেতাদের পাশাপাশি যোগ দিয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং গত নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart