1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২১ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জ বারের নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বিএনপিপন্থি প্যানেলের

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১৫৬

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন থেকে শেষ মুহুর্তে সরে দাঁড়িয়েছে বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদি আইনজীবী ঐক্য ফোরাম মনোনীত হুমায়ূন-জাকির প্যানেল। নির্বাচনের মাত্র ১৯ ঘন্টা আগে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয় এই প্যানেল।  মঙ্গলবার দুপুর ২টায় নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগসহ হুমকি ধমকি এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ না থাকার কারণ দেখিয়ে আদালত প্রাঙ্গনে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত দেয় এই প্যানেলের নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলন থেকে নতুন তফসীল ঘোষণা করে পুনরায় নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা এবং বর্তমান নির্বাচন কমিশন পরিবর্তনেরও দাবি জানানো হয়।
নতুন নির্বাচনের দাবিতে আজ বুধবার থেকে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা লাগাতার আন্দোলনেরও ঘোষণা দেয়। সংবাদ সম্মেলন শেষে নির্বাচন কমিশনারদের কুশপুত্তলিকা দাহ ও আদালতে প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ মিছিল করে। নারায়ণগঞ্জ বারের ইতিহাসে এর আগে নির্বাচন বর্জনের কোন ঘটনা ঘটেনি।
বিএনপিপন্থি প্যানেলের নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা সর্ম্পকে জানতে চেয়ে যোগাযোগ করা হলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট আকতার হোসেন কোন কথা বলতে রাজি হননি। আজ বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হবে। এবার সমিতির নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৯২২ জন।
সংবাদ সম্মেলনে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ও বারের সাবেক সভাপতি এবং জাতীয়তাবাদি আইনজীবী ঐক্য ফোরাম নেতা অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন গত বছরেও দায়িত্ব পালন করেছিল। সেবার তারা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে ব্যর্থ হওয়ায় এ বছরও তাদের দায়িত্ব দেওয়ায় প্রথম থেকে দলমত নির্বিশেষে বারের ৯০ শতাংশ আইনজীবী এই নির্বাচন কমিশনের বিরোধীতা করে কমিশন পরিবর্তনের দাবি করে আসছিল। এজন্য আমরা সংশ্লিষ্টদের কাছে লিখিতও দিয়েছিলাম। কিন্তু এতে কোন কাজ হয়নি। এ অবস্থার মধ্যে গত সোমবার হঠাৎ করেই নির্বাচনের সিডিউলকে উপেক্ষা করে ভোট গ্রহণের স্থান বার ভবনের নিচতলার পরিবর্তে জেলা জজ ভবনের তৃতীয় তলায় স্থানান্তর করা হয়। যা সম্পূর্ণ বেআইনী। আমরা নির্বাচন কমিশনের এ ধরণের কার্মকান্ডেরও বিরোধীতা করেছি। আমরা বুঝতে পেরেছি এ নিার্বচন কমিশন সরকারি দলের আজ্ঞাবহ। তাদের মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। অতীতেও তারা ব্যর্থ হয়েছিল। এবারও তারা আজ্ঞাবহ হিসেবে কাজ করছে। একারণে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোকেই আমরা শ্রেয় মনে করছি।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপিপন্থি প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী অ্যাডভোকেট হুমায়ূন কবীর, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী অ্যাডভোকেট একে আজাদ জাকির, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আল ইউসুফ খান টিপু, অ্যাডভোকেট নবী হোসেন, অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ খান ভাষানী, অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলুসহ বিএনপি প্যানেলর আইনজীবীরা।
এদিকে প্রতিপক্ষ প্যানেলের নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোহসিন মিয়া তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, প্রতিপক্ষ তাদের নিশ্চিত পরাজয় আঁচ করতে পেরেই নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। এটি তাদের আভ্যন্তরীণ ব্যাপার।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart