1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন

না.গঞ্জ ক্লাব নির্বাচন: মাসুমের ক্ষুদে বার্তায় ক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৯৫

নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের গত নির্বাচনে সবচেয়ে বেশী ব্যবধানে পরাজিত এবার সভাপতি প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান মাসুমের ভোটারদের কাছে একটি ক্ষুদে বার্তা নিয়ে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে সাধারণ সদস্যদের মাঝে। ফলে এবারের নির্বাচনেরও  তার ভরাডুবির আশংকা করা হচেছ।

মাসুমের প্রতি ক্লাবের সাধারণ সদস্যদের সহানুভূতি থাকলেও ক্লাব নিয়ে রাজনীতিকরণ ও আপত্তিকর এসএমএস এর কারণে সেই সহানুভুতি রুপ নিয়েছে ক্ষোভে। গত নির্বাচনে প্রকাশ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী তার পক্ষে ভোট চেয়েছেন। কিন্তু লজ্জাজনকভাবে হেরে যান মাসুম। তবে এবার আর মেয়র আইভীর তার পক্ষে মাঠে নামেননি। কিন্তু মাসুম বিভিন্ন ভোটারদের কাছে প্রচার করছেন মেয়র তার সাথে আছে। এটাকে অনেকে মাসুমের নির্বাচনী স্ট্যান্ডবাজি হিসেবে দেখছেন।

তারা বলছেন, এবারের নির্বাচনে মাসুম গতবারের চেয়েও কম ভোট পাবেন। কারণ অরাজনৈতিক ও ঐতিহ্যবাহী এই ক্লাবের সদস্যরা সাবেক সভাপতি তানভীর আহমেদ টিটুকে একাধিকবার ভোট দিয়ে জয়ী করেছিল ক্লাবের উন্নয়নের প্রশ্নে। সেখানে মাহাবুবুর রহমান মাসুম পুরো নির্বাচনটিকে রাজনৈতিক রঙ দেয়ার চেষ্টা করছেন এবং দুনীর্তির কথা এনে তিনি সাধারণ সদস্যদের অপমান করেছেন।

এই ক্লাবটি এলিট শ্রেনীর এবং এখানে ‘রক্তচক্ষু’ তিনি কোথায় পেলেন তা আমাদের বোধগম্য নয়। সাধারন সদস্যরা বলছেন, মাহাবুবুর রহমান মাসুমের মত ব্যক্তি ক্লাব সভাপতি হলে পুরো ক্লাবটি রাজনীতিকরণের শিকার হয়ে যাবে।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ ক্লাব নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান মাসুম ক্লাবের সকল সদস্যদের কাছে ভোট প্রার্থনা করে একটি ক্ষুদে বার্তা (এসএমএস) প্রেরণ করেছেন। ওই এসএমএসে তিনি তার ক্রমিক নং ১ এ ভোট প্রার্থনার পাশাপশি লিখেছেন, “একটি দুর্নীতিমুক্ত আধুনিক ক্লাব বিনির্মানে রক্ষ চক্ষুকে উপেক্ষা করে স্বাধীনভাবে ভোট দিন”।

এই ক্ষুদে বার্তাটি পাওয়ার সাথে সাথে ক্লাবের সাধারন সদস্যদের মাঝে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়। তারা বলছেন, তানভীর আহমেদ টিটু দুইমেয়াদে ক্লাবের সভাপতি ছিলেন। টিটু সভাপতি থাকাকালীন ক্লাবের আধুনিকায়ন যেমন করেছেন তেমনি ক্লাবের উন্নয়ন করেছেন। তানভীর টিটু নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের ইতিহাসে প্রথমবারের মত পুরো হিসাব নিকাশকে ডিজিটাল রুপ দিয়েছেন যাতে ক্লাব সদস্যদের প্রতিদিনের লেনদেন মোবাইলে এসএমএম এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হচ্ছে।

দুনীর্তিমুক্ত ও স্বচ্ছতা রাখতে ক্লাবে নগদ টাকার লেনদেন বন্ধ করে কার্ডের মাধ্যমে লেনদেনের ব্যবস্থা করেছেন। শুধুমাত্র নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সদস্যদের জন্য একটি বেসরকারী ব্যাংকের সাথে ক্লাবের নিজস্ব ক্রেডিট কার্ডের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ৩টি নতুন লাউঞ্জ তৈরীসহ পুরনো লাউঞ্জগুলোকে অতীতের ইউরোপিয়ান আদলে তৈরী করা হয়েছে। পুরাতন কমিউনিটি সেন্টার ভেঙে সেখানে ১৫তলা নতুন ভবন তৈরীর সিদ্ধান্তটি ছিল যুগান্তকারী এবং এই ভবন তৈরীর ব্যয় মেম্বারদের সন্তান ও স্ত্রীদের এসোসিয়েট মেম্বার করার অর্থ থেকেই উঠে এসেছে। যার পুরো অর্থ ক্লাবের হিসেবে ব্যাংকে জমা রয়েছে।

এসব কারণে টিটুকে পুনরায় সভাপতি করতে শত শত ক্লাব মেম্বাররা ক্লাবের গঠনতন্ত্র পর্যন্ত পরিবর্তন করারও দাবী তুলেছিলেন।

ক্লাব সদস্যরা ক্ষোভ জানিয়ে আরো বলেন, মাহাবুবুর রহমান মাসুম নিজের কথাবার্তা আর আচরণে তার প্রতি ক্ষোভ সৃষ্টি করেছেন। এই ক্লাবে কখনও রাজনীতি প্রভাব ফেলেনি কিন্তু উনি সব সময়ই নির্বাচন এলে এখানে রাজনীতি টেনে আনছেন। উনি প্রেস ক্লাবের সভাপতি এবং এই সমাজের দর্পন সম্মানিত সাংবাদিকদের নেতা। তার কাছে এমন আচরণ আমরা কেউই আশা করি না। নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমেই তাকে এই ক্ষোভের জবাব দিবে ক্লাব সদস্যরা। তার বোঝা উচিত নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব ও নারায়ণগঞ্জ ক্লাব এক নয়।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart