1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৪৮ পূর্বাহ্ন

না.গঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভায় চরম হট্টগোল

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১৬৬

একতরফা ভাবে নির্বাচন কমিশন গঠনের চেষ্টা করায় নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভায় হট্টগোল হয়েছে। এক পর্যায়ে সাধারণ সভা সমাপ্তি ঘোষণার আগেই সভা থেকে বেশ কিছু সদস্য বেরিয়ে গেলে সমাপ্তি ঘোষণা ছাড়াই সভা পন্ড হয়ে যায়। পরে আওয়ামী লীগের একাংশ ও বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা বারের নির্বাচনের জন্য সবার মতামতের ভিত্তিতে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবিতে আদালত প্রাঙ্গণে পৃথক পৃথক বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ফলে আগামী ২৯ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠানের তারিখ ঘোষণা হলেও বার্ষিক সাধারণ সভা অমিমাংসিত থাকায় নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।
এদিকে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল জানান, তারা আজ বৃহস্পতিবার বার্ষিক সাধারণ সভায় বারের নির্বাচনের জন্য ৫ সদস্যের একটি নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছেন। সেটি কণ্ঠ ভোটে পাশও হয়েছে। তবে সভায় উপস্থিত কিছু আইনজীবী এর বিরোধীতা করেছেন স্বীকার করে তিনি বলেন, তারা সংখ্যায় ছিলেন কম। কিন্তু এরপর আওয়ামী লীগের একাংশ এবং বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা কেন আদালত প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন-এটা যারা মিছিল করেছে তারাই ভাল বলতে পারবেন। আমি এ ব্যাপারে কিছু জানি না।
হাসান ফেরদৌস জুয়েল আরও বলেন, আগামী ২৯ জানুয়ারি বারের নির্বাচনের তারিখ ধার্য করা হয়েছে। এজন্য ৫ সদস্যদের নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করা হয়েছে। কমিশনে চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন, প্রবীণ আইনজীবী আক্তার হোসেন, আশরাফ হোসেন, আবদুর রহিম, মেরিনা আক্তার এবং সুখ চাঁদ সরকার।
অপরদিকে আইনজীবী সমিতির সভাপতির বক্তব্যকে নাকচ করে দিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির দুই বারের সাবেক সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু বলেন, বার্ষিক সাধারণ সভার শেষ দিকে নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে মতবিরোধ দেখা দেয়। সাধারণ আইনজীবীরা উপস্থিত সবার মতামতের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি জানায়। ওই সময় হৈ চৈই হট্টগোল শুরু হলে কমিটির লোকজন সভা সমাপ্তি না করেই এবং নির্বাচন কমিটি গঠন ছাড়াই সভাস্থল ত্যাগ করেন। ফলে আমরা বাধ্য হয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবিতে আদালতের বাইরে বিক্ষোভ মিছিল করেছি।
অপরদিকে বারের সাবেক সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানও একই অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান কমিটি নির্বাচনের জন্য যে কমিশন গঠন করতে চেয়েছিল সেটি ছিল তাদের আজ্ঞাবহ। গত নির্বাচনেও এরাই দায়িত্ব পালন করেছিলেন এবং তারা ওই সময় নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে পারেননি। এই কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে বারের অনেক আইনজীবী ভোট দিতে পারেননি। ফলে এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব নয়। আমরা সবার মতামতের ভিত্তিতে নিরপেক্ষ কমিশন গঠনের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছি। আগামী রোববার থেকে এই দাবিতে আমাদের ধারাবাহিক বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে। আমরা বিষয়টি জানিয়ে বার কাউন্সিলে লিখিত অভিযোগ জানাবো।
উল্লেখ্য, গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ১৭টি পদের বিপরীতে ১৬টিতে জয়লাভ করে। পক্ষান্তরে বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদি আইনজীবী ফোরাম থেকে একজন সদস্য পদে জয় লাভ করে। তবে এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন। এবার আওয়ামী লীগ থেকেই ভিন্ন দু’টি প্যানেল দেওয়া হতে পারে।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart