1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:১৪ পূর্বাহ্ন

শেয়ারবাজারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা ফিরোজ রশীদের

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১৭৩

বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেছেন, শেয়ার বাজার একেবারে শুয়ে পড়েছে। বিনিয়োগকারীরা রাস্তায় নেমেছেন। এখন প্রধানমন্ত্রী যদি হস্তক্ষেপ করেন তাহলে শেয়ারবাজার ফিরে আসতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি) রাতে জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, দেশ চলে তিন নীতিতে, রাজনীতি, অর্থনীতি আর দুর্নীতি। শেয়ার মার্কেট মাটিতে শুয়ে গেছে, বিনিয়োগকারীরা রাস্তায় নেমে পড়েছে। শেয়ার বাজার কেন এরকম হলো। অর্থমন্ত্রী অত্যন্ত সুদক্ষ। শেয়ার বাজার নিয়ে চিন্তাও করেন, ওনার একটা গভীর চিন্তাভাবনাও আছে। এই মার্কেটে কোথায় কী হচ্ছে এর সম্মুখ ধারণা ওনার আছে। কারণগুলো সবার জানা। সিকিউরিটি এক্সেচেঞ্জ কমিশন দুর্বল পঁচা কোম্পানিগুলো লিস্টিং করে বাজারে ছেড়ে দেয়। আমরা বলেছিলাম দুর্বল কোম্পানি যেন লিস্টিং না করে। একমাত্র কারণ দুর্বল কোম্পানি শেয়ার বাজারে লিস্টিং দেয়া হচ্ছে যে কারণে এ রকম ধ্বস।

তিনি বলেন, আমরা লিস্টিং দেই না। দেয় সিকিউরিটি এক্সেচেঞ্জ কমিশন। আমরা বার বার ফেরত পাঠাই দুর্বল লোক পঁচা কোম্পানি বাজারে নিয়ে আসছে, ফলে আমাদের বিনিয়োগকারীদের রাস্তায় বসিয়ে দিয়েছে। তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি করেছিলাম। আজ পর্যন্ত কমিশন করা হয়নি। একটা লোককেও শাস্তির আওতায় আনা হয়নি বাজার থেকে মূলধন ৯৫ হাজার কোটি টাকা নেই।

সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ কমিশনের প্রতি অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, পঁচা কোম্পানি আমাদের কাছে ছেড়ে দেন। পৃথিবীর কোনো দেশে নেই শেয়ার কিনতে বাধ্য করবে, এই টাকায় শেয়ার বিক্রি করতে হবে। শেয়ার মার্কেটে যারা ৩০ বছর যেত তাদের পায়ে জুতা নেই। তারা বলছে আমাদের দেখার কি কেউ নেই। সিকিউরিটিস এক্সচেঞ্জ কমিশন জগদল পাথরের মতে বসে আছেন। শুধু লিস্টিং দেয়াই তাদের কাজ, আর কোনো কাজ নেই। পঁচা কোম্পানি এনে প্রতিনিয়ত নিঃস্ব করে দেয়া হচ্ছে, কারো বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

ফিরোজ রশীদ বলেন, ইস্যু ম্যানেজারকে গ্রেফতার করা যাচ্ছে না। প্রশান্ত হলদার নামে একটা লোক নন ব্যাংকিং কিছু প্রতিষ্ঠান করে তিন হাজার ৫০০ কোটি টাকা নিয়ে গেছে। ওনি দেশে নেই, পালিয়েছেন। কার জবাব কে দেবে। এ জন্য অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। নিশ্চই প্রধানমন্ত্রী যদি হস্তক্ষেপ করেন তাহলে শেয়ার মার্কেট আবার ফিরে আসতে পারে। নইলে এখান থেকে ফিরে আসার উপায় দেখি না।

কাজী ফিরোজ রশীদের সঙ্গে একমত পোষণ করে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ বলেন, মন্ত্রীরা দেশে কোনো বিপর্যয় দেখতে পান না, দেশে কোনো সংকট-সমস্যা নেই। এ সব উত্তর যখন আসে হতভম্ব হয়ে যাই, বিস্মিত হয়ে যাই। গত এক সপ্তাহ ধরে পুঁজি বাজারের জন্য মানুষ রাস্তায় শুয়ে পড়েছে, তাদের আজ কাজ নেই, বিপর্যস্ত লাখ লাখ পরিবার সম্পূর্ণরূপে ধুলায় মিশে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের কোনো পদক্ষেপ বা কার্যকর পদক্ষেপ দৃশ্যমান নেই। এ বিষয়ে কোনো আশ্বস্ত হতে পারছি না। মুজিব বর্ষ উদযাপন করছি এতো প্রবৃদ্ধি এতো উন্নতি আমরা চারদিকে বিশাল বিশাল স্থাপনা বানাচ্ছি। সত্যিকার অর্থে অর্থমন্ত্রী বিনিয়োগকারীর রক্ষার জন্য কী ব্যবস্থা নিয়েছেন একটু জানাবেন।

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart