1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৪৫ অপরাহ্ন

সারা দেশে দুদকের ১১ অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১০৫

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সারা দেশে ১১টি দুর্নীতিবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। কমিশনের এনফোর্সমেন্ট ইউনিটে আসা অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) টাঙ্গাইল জেলা কার্যালয়ে বহিরাগত দালালরা অবৈধভাবে অফিসে অবস্থান করে দাফতরিক কার্যক্রম সম্পাদন করছে অভিযোগ আসে। সেখানে সমন্বিত জেলা কার্যালয় টাঙ্গাইলের সহকারী পরিচালক আতিকুল আলমের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানকালে দুদক টিম অফিসের আশপাশে দালালদের উপস্থিতি দেখতে পায় এবং টিমের উপস্থিতি টের পেয়ে দালালরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এছাড়া অফিসে অননুমোদিতভাবে কীভাবে বাইরের লোকজন দাফতরিক কাজ সম্পাদন করে তা জানতে চাইলে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ তা অস্বীকার করে। এ বিষয়ে কার্যালয়ের প্রধানকে ভবিষ্যতে দালালমুক্ত অফিস নিশ্চিতকরণ এবং আগত গ্রাহকদের দ্রুত সেবা প্রদানে আরও সচেষ্ট হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয় দুদক টিম।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে সরকারি ওষুধ বাইরের ফার্মেসিতে বিক্রয় এবং দালালদের মাধ্যমে রোগীদের বাইরের ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগে সমন্বিত জেলা কার্যালয় রাজশাহীর সহকারী পরিচালক নাজমুল হোসেনের নেতৃত্বে আরেকটি অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানকালে দুদক টিম আশপাশের বেশ কয়েকটি ফার্মেসিতে সরকারি ওষুধ বিক্রি করা হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখতে তল্লাশি চালায়। এছাড়া হাসপাতালে নানা অনিয়মের সঙ্গে জড়িত বলে পরিচিত ‘দালাল শামীম’ নামক ব্যক্তিকে খোঁজ করে দুদক টিম। তারা জানতে পারে, কিছুদিন আগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তৎপরতায় তাকে এলাকা ছাড়া করা হয়েছে।
হাসপাতালের কার্যক্রমে স্বচ্ছতার সঙ্গে পরিচালনার জন্য বিভিন্ন স্থানে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে এবং অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে সরকারি ওষুধের রেজিস্টার সংরক্ষণ করা হচ্ছে বলেও জানায় কর্তৃপক্ষ।

পশ্চিমগাঁও ভূমি অফিস লাকসাম, কুমিল্লার তহসিলদার মো. মহসিন প্রতিটি নামজারি থেকে ৩০-৪০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করে এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুদক কুমিল্লা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রাফি মো. নাজমুস সাদাতের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানকালে জানা যায়, অভিযুক্ত ব্যক্তি এর আগেও আগত সেবাপ্রার্থীদের কাছ থেকে ঘুষ দাবি করেছে এবং এ বিষয়ে অনেকেই সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কাছে অভিযোগ জানিয়েছে। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে তাকে পশ্চিমগাঁও ভূমি অফিস থেকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে। দুদক টিম কর্তৃপক্ষকে ঘুষমুক্তভাবে ভূমি সেবা প্রদানের জন্য সচেষ্ট থাকার আহ্বান জানায়।

এছাড়া রেলের টিকিট বিক্রিতে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে ও ভুয়া কাগজপত্র, জন্ম সনদ দিয়ে সরকারি চাকরিতে যোগদানের অভিযোগে দুদক প্রধান কার্যালয় এবং সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোর হতে আরও দুটি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

এছাড়া আগত অভিযোগের প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত মহা পুলিশ পরিদর্শক– সিআইডি, বাংলাদেশ পুলিশ; জেলা প্রশাসক, চাঁদপুর; জেলা প্রশাসক, ফেনী; ব্যবস্থাপনা পরিচালক- তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড বরাবর চিঠি পাঠিয়েছে দুদকের এনফোর্সমেন্ট ইউনিট।

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart