1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
সোমবার, ২০ জানুয়ারী ২০২০, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ
জিয়াউর রহমান আ’লীগের পুনর্জীবন দিয়েছে : আব্বাস আ’লীগ যেখানে ব্যর্থ বিএনপি সেখানে সফল : মোশাররফ ফাঁসির আসামিকে যুগ্ম-মহাসচিব পদ দেয়ায় গাজীপুরে বিক্ষোভ ইলেকট্রনিক পাসপোর্টের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ফটোগ্রাফ নেয়া হয়েছে দুই সিটির নির্বাচনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে আ’লীগ : কৃষিমন্ত্রী দাখিল পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন প্রকাশ আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্টে শ্রীলংকাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে বাংলাদেশ দায়িত্ব নিয়ে কাজ করুন : কর্মকর্তাদের স্থানীয় সরকারমন্ত্রী ইভিএম বাতিলের দাবি আদায় হবে: মির্জা ফখরুল ৩০ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ অস্ত্র বহন ও প্রদর্শন নিষেধ

সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৪০ জন সংবাদটি পড়েছেন

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সমাবেশে ২০০১ সালের ২০ জানুয়ারি বোমা হামলায় জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি করেছেন সংগঠনটির বর্তমান সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।

সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলার ঘটনায় ১৯ বছর পর এ মামলার রায়ের জন্য আগামী বছরের ২০ জানুয়ারি (সোমবার) দিন ধার্য করেছেন আদালত।
শনিবার (১ ডিসেম্বর) রাতে এ মামলার রায়ের দিন ধার্য হওয়ার পর বাংলা২৪বিডি নিউজকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে সিপিবি সভাপতি এ দাবি করেন।

সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, উদীচীর সমাবেশে বোমা হামলার মধ্য দিয়ে এদেশে বড় ধরনের বোমা হামলার সূচনা হয়। এরপর পল্টনে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা করা হয়। রমনার বটমূলে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানেও বোমা হামলা করা হয়। দেশের কমিউনিস্ট এবং বাম ধারার সংগঠনগুলোর ওপর বোমা হামলার মাধ্যমেই দেশে বোমা হামলার সূত্রপাত হয়। সেই সময়ে আমরা এসব বোমা হামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবি জানিয়েছিলাম। কমিউনিস্ট পার্টির সমাবেশে হামলার পর আমরা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে বলেছিলাম, অতি দ্রুত এই হামলাকারীদের গ্রেফতার করে বিচার করুন, নাহলে ভবিষ্যতে এটা ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনবে।

তৎকালীন সরকারের সমালোচনা করে সেলিম বলেন, বোমা হামলার পর সরকার এসব ঘটনার বিচারে চরম গাফিলতি করেছে। সময়ক্ষেপণের কারণে এসব অপরাধীদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। এমনকি সন্দেহজনক ব্যক্তিদের ছবি এবং ভিডিও প্রদান করা সত্ত্বেও তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। হামলাকারী কয়েকজনের নাম দেশের জনপ্রিয় একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশ হয়ে যায়। সে সময় বোমা হামলাকারীরা একটা চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছিল, এমন সময় কেউ একজন এসে হামলাকারীদের পত্রিকায় নাম প্রকাশের বিষয়ে জানালে, তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

এরপরেও অনুসন্ধান করে তাদেরকে গ্রেফতার করা সম্ভব ছিল কিন্তু এসব ক্ষেত্রে সরকার গাফিলতি করেছে।

দেশের অন্যান্য বোমা হামলা প্রসঙ্গে সিপিবি সভাপতি বলেন, এরপর ধারাবাহিকভাবে দেশে একের পর এক বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। যেমন শেখ হাসিনার ওপর ২১ শে আগস্টের গ্রেনেড হামলা, সিনেমা হলে বোমা হামলা, এছাড়াও আওয়ামী লীগের আরও কয়েকটি সমাবেশে বোমা হামলা, দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলা এসব একই সূত্রে গাঁথা।

বোমা হামলার ঘটনায় বিএনপির সমালোচনা করে তিনি আরও বলেন, বিএনপি সরকারের আমলে সিপিবি’র মহা সমাবেশে বোমা হামলার ঘটনায় চূড়ান্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। আমরা সিপিবি’র পক্ষ থেকে এর তীব্র প্রতিবাদ করি। যার ফলে মামলাটির কার্যক্রম আবার শুরু হয়।

বোমা হামলাকারীদের বিষয়ে উল্লেখ করে সেলিম বলেন, সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলাকারীদের অনেকে এখন এর জীবিত নেই। দেশের স্বার্থে স্বাভাবিকভাবে এটাই কাম্য যে এই মামলায় আমরা যেসব সাক্ষী প্রমাণ হাজির করেছি, সেই অনুযায়ী এই বোমা হামলার সঙ্গে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।

রাজধানীর পল্টন ময়দানে ২০০১ সালের ২০ জানুয়ারি সিপিবির মহাসমাবেশে দুর্বৃত্তদের বোমা হামলায় ৫ জন নিহত এবং ২০ জন আহত হন।

ফেসবুকে আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart