1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫২ অপরাহ্ন

হামলার পরও ইশরাকের প্রচারে জনজোয়ার

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) :
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১৯০

প্রচারণা শেষে ফেরার পথে গোপীবাগে হামলার ঠিক পরদিনই চমক দেখালেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।

সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ও ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনে মতবিনিময়ের পর তিনি রাজধানীর খিলগাঁও এলাকায় প্রচারণায় যান।

খিলগাও জোড়া পুকুরপাড়ে পথসভা শেষে তিনি, খিলগাঁও রেলগেট, বাসাবো, মুগদা, কমলাপুর, মতিঝিল হয়ে নয়াপল্টনের দিকে আসার জন্য রওনা দেন।

এ সময় দেখা যায়, তার প্রচার বহর জনজোয়ারে পরিণত হয়েছে। সড়কের যতদূর চোখ গেছে, ততদূর শুধু মাথা আর মাথা। গানে গানে আর স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে রাজপথ।

এমন জনজোয়ারের দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করতে দেখা গেছে রাস্তার দুই পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বেশিরভাগ মানুষকে। রাস্তার দুই পাশের ভবন থেকেও মোবাইলে ছবি তুলেছেন কিংবা ভিডিও করেছেন অনেকে।

স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, মধ্যবয়সী, বৃদ্ধ নারী শ্রমিক বিভিন্ন পেশার মানুষ কমলাপুর রেলস্টেশন সংলগ্ন ফ্লাইওভারের উপরে দাঁড়িয়ে ভিডিও ধারণ করেন।

কারো কারো হাতে স্মার্টফোন না থাকলেও তারা ইশরাকের এই প্রচার বহরের ভিডিও করেছেন ও ছবি তুলেছেন।

এই জনজোয়ারের দৃশ্য ধারণের সময় এত লোক দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেন কেউ কেউ। ভিডিও ধারণের সময় একজন বলছিলেন, গতকাল হামলা চালিয়েও সরকার দমিয়ে রাখতে পারেনি।

আরেকজন বলেন, নারী-পুরুষ বৃদ্ধ-যুবক-শিশু বিভিন্ন পেশার মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণই প্রমাণ করে ইশরাকের জনপ্রিয়তা। এটাই বোঝা যায় ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে এবার আর হয়তো সরকারের কোনো বাধাই এদের আটকে রাখতে পারবে না।

গতকাল ইশরাক বলেছিলেন, হামলা মামলা হামলা চালিয়ে ভয়-ভীতি দেখিয়ে দমিয়ে রাখা যাবে না।

এর আগে সোমবার বিকেলে ইশরাক হোসেন জোড়া পুকুর পাড়ে পথসভায় বক্তব্য রাখেন।

এই শহরকে একেবারে বসবাসের অযোগ্য করে ফেলেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই সরকার জোর করে ক্ষমতায় এসেছে। তাই জনগণের নয়, তারা শুধু নিজেদের উন্নয়নে ব্যস্ত।

তিনি বলেন, ‘আমি বলতে চাই, কিছুদিন আগে আমাদের ঢাকা উত্তরের প্রার্থীর গণসংযোগ হামলা চালিয়েছিল। প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কাউন্সিলর প্রার্থীর গণসংযোগে হামলা ও বাধা দেয়া হচ্ছে। রোববার   আমার শান্তিপূর্ণ গণসংযোগে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বাধাগ্রস্থ করার চেষ্টা করেছে। পরবর্তীতে ওই পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে আমাদের কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আমাদের কর্মীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ’

ধানের শীষের গণজোয়ার সরকার ভীত উল্লেখ করে বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী বলেন, ‘আমাদের ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, জাতীয়তাবাদী প্রার্থীদের যে জনপ্রিয়তা, এটি দেখে তারা এখন ভীত। এই নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করে অন্য উপায়ে ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছেন। যেটা অতীতে আমরা বহুবার দেখেছি। গত জাতীয় নির্বাচনে আমরা দেখেছি কিভাবে তারা নির্বাচনে কারচুপি করেছে। সিল মেরে ব্যালট বাক্স ভর্তি করেছে। প্রার্থীদেরকে, সিনিয়র গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের গায়ে হাত দেওয়ার মতো দুঃসাহস দেখিয়েছে।’

কোন প্রকার উস্কানির ফাঁদে পা না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘পহেলা ফেব্রুয়ারি আপনারা ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হবেন এবং শান্তিপূর্ণ ভোটের মাধ্যমে এই সন্ত্রাসী সরকারের জবাব দেবেন।’

গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনে নেমেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র আমরা প্রতিষ্ঠা করব, রাষ্ট্রের মালিকানা ফিরিয়ে দেবো, জনগণকে তার অধিকার ফিরিয়ে দেবো।’

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart