তিস্তায় ভয়াবহ ভাঙ্গন হুমকির মুখে বিজিবি ক্যাম্প

0
5

নীলফামারী (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): তিস্তা নদীর পানি কমে যাওয়ার সাথে সাথে ব্যাপক নদী ভাঙ্গন শুরু করেছে। রবিবার রাতে তিস্তার ভাঙ্গনে চরখড়িবাড়ী মৌজার কাইয়ুমের বাড়ী সংলগ্ন রাস্তার ৫’শ মিটার নদী গর্ভে বিলিন হওয়ায় চরখড়িবাড়ী ১ হাজার ৮শ পরিবারে নতুন করে বানের পানি প্রবেশ ও ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। রাস্তাটি ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে চরখড়িবাড়ী বিজিবি ক্যাম্পের ভিতরে বন্যার পানি প্রবেশ করে হাটু পানিতে তলিয়ে রয়েছে। এতে করে যে কোন মুর্হুতে বিজিবির ক্যাম্পটি ভাঙ্গনের বিলীন হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি হুমকির মুখে পড়ছে চরখড়িবাড়ী গ্রামের ১ হাজার ৮শ পরিবার।
এদিকে ভাঙ্গনে রাস্তাটির বিলিন হওয়ার চরখড়িবাড়ী মৌজার কয়েক শত বিঘা জমির আমন ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। এলাকার ৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১ টি উচ্চ বিদ্যালয়ে বন্যার পানি ও ভঙ্গনের কবলে পড়ায় শিক্ষা কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়া ভাঙ্গনের আশংকায় রয়েছে ১টি কমিউনিটি ক্লিনিক।
ডিমলা উপজেলার ঝুনাগাছ চাঁপানী ইউনিয়নের ভেন্ডাবাড়ি, ছাতুনামা, ফরেষ্ট ও টেপাখাড়বাড়ী ইউনিয়নের চর খড়িবাড়ীর গ্রামে গত দিন ধরে ব্যাপক ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। তিস্তা নদীর ঘেষাঁ স্বপন বাঁধের সংস্কারকৃত সিডিএমপির মাটির বাঁধটি চরম হুমকির মুখে পড়েছে। ইতিমধ্যে বাঁধটির ৩ শত মিটার তিস্তার নদীতে বিলিন হয়েছে। এদিকে উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের প্রায় ৪০ টি পরিবারের ১শ ৫০ জন, খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের ৭০ টি পরিবারের ৩শ জন মানুষ তিস্তার ভয়াবহ ভাঙ্গনের কারনে মানবেতর জীবন যাপন করছে।
টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানান, তার ইউনিয়নের চরখড়িবাড়ী গ্রামের প্রায় ৪০ টি পরিবারের photo-07.09.15 (1)লোকজন তিস্তার ভাঙ্গনের কারনে একদিকে আশ্রয় অন্যদিকে শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির চরম সঙ্কটে পড়েছে। চরখড়িবাড়ী বিজিবি ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার নায়েক সুবেদার আব্দুল মাজেদ জানায়, বিজিবি ক্যাম্পটির ভিতরে সোমবার সকাল থেকে হাটু পানিতে তলিয়ে রয়েছে। ক্যাম্পের ৩শ ফিট কাছাকাছি তিস্তার মুল নদী ও ৩ মিটার পাশ দিয়ে বন্যার পানি প্রবল বেগে বইতে থাকায় যেকোন সময় নদীর ভাঙ্গনে ক্যাম্পটি বিলিন হওয়ার আশংকা রয়েছে বলে তিনি জানান। দুপুরে ভাঙ্গনের আশংকায় থাকা বিজিবি ক্যাম্পটি পরিদর্শন করেন বর্ডার গার্ড ৭ ব্যাটলিয়ানের উপ-অধিনায়ক আবু নায়েম মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।
ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান, ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলির তালিকা তৈরী করতে স্ব-স্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের বলা হয়েছে। তালিকা প্রস্তুত হলেই ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here