নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা তীরে পশুর হাটে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

0
19

নারায়ণগঞ্জ (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে পশুর হাট বসানোর বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে হাইকোর্ট। মঙ্গলবার দুপুরে হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা দায়দার চৌধুরী ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের যৌথ বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন রিট পিটিশনটি দাখিল করেন। এতে বিবাদী করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনকে। সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী মোঃ একরামুল হক স্বাক্ষরিত ল’ইয়ার্স সার্টিফিকেটে এ তথ্যটি নিশ্চিত করা হয়।
এদিকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আটি মনোয়ারা জুট মিলস প্রাইভেট লিমিটেড মাঠ সংলগ্ন হাটসহ নদী তীরের সকল হাটের কার্যক্রম বন্ধের জন্য নাসিক মেয়রকে চিঠি দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষ। এছাড়া অনুলিপি দেয়া হয়েছে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ৩টি থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্টদের।
জানা গেছে, গত ১০ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন ১৬টি অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারার দরপত্র জমা নেয়া হয়। এর মধ্যে ১৩টির দরপত্র জমা পড়লেও ২টিতে দর কম দেয়ায় আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় দফায় ৫টি হাটের পুনরায় দরপত্র আহবান করা হয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জে আটি মনোয়ারা জুট মিলস প্রাইভেট লিমিটেড এর পূর্ব পাশের খালি মাঠের জন্য ৭টি দরপত্র জমা পড়লেও সর্বোচ্চ ছিল ওমর ফারুক রানার ১০ লাখ ১০ হাজার টাকার দরপত্র। তবে এই হাটটি নিয়ে স্থানীয় ক্ষমতাসীনদের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। এ হাটের মাধ্যমে নদী দূষণ, বনায়ন প্রকল্প ও ওয়াকওয়ের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কায় গত শনিবার এ হাটের ইজারা বাতিলের দাবিতে স্থানীয় লোকজন বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে হাট বাতিলের দাবী জানিয়ে রোববার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও নাসিক মেয়র ডা: আইভির কাছে স্মারক লিপিও পেশ করেন তারা। এরপর এ বিষয়ে টনক নড়ে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের। কারণ হাটটি ছিল শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে ওয়াকওয়ে সংলগ্ন সীমানা পিলারের ভেতরে। এছাড়া ওই এলাকায় অবৈধ বালু ও পাথরের ব্যবসা বন্ধ করতে ইতিমধ্যে নদীর তীরে অসংখ্য গাছ লাগিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। ফলে তারা হাটটি বন্ধ করতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাছে দাবি জানায়। তবে নাসিক কর্তৃপক্ষ হাট ইজারা বাতিল না করায় মঙ্গলবার বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফউদ্দিন হাইকোর্টে রিট পিটিশনটি দাখিল করেন।
বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন জানান, এর আগে নদীরতীর নিয়ে সরকারের কোন পরিকল্পনা ছিলনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নদীরতীর নিয়ে বৃহৎ পরিকল্পনা করেছেন। এই পরিকল্পনা থেকেই নদীকে দুষণ মুক্ত রাখতে নদীরতীরে ওয়াকওয়ে, বনায়ণ প্রকল্প করা হয়েছে। এখানে নির্মান করা হবে ইকোপার্ক। এ জায়গায় পশুর হাটের কোন যৌক্তিকতা নেই। নাসিক কর্তৃপক্ষ আমাদের অবগত করনেনি। পরে এ বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে নাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিতভাবে জানালে তিনি কোন উদ্যোগ না নেয়ায় হাইকোর্টে এই রিট পিটিশন দায়ের করা হয়। এছাড়া সিটি করপোরেশনের মেয়রের বরাবরে এ বিষয়ে একটি চিঠিও দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন ১৬টি পশুর হাটের মধ্যে বেশ কয়েকটি শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে রয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম সিদ্ধিরগঞ্জে আটি মনোয়ারা জুট মিলস প্রাইভেট লিমিটেড এর পূর্ব পাশের্^র খালি মাঠ, বরফকল মাঠ, নবীগঞ্জ হাট, জামাল সোপ ফ্যাক্টরী সংলগ্ন হাট, সোনাকান্দা হাট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here