৫০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবীতে অভিনব কায়দায় প্রবাসীর শিশু পুত্র অপহরণ, দু’দিন পর উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২

0
3

 নারায়ণগঞ্জ (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): নরসিংদী থেকে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবীতে অপহৃত জর্ডান প্রবাসী আলমগীর ওরফে আলমের শিশু পুত্র জিহাদ (৩)কে ঢাকার মিরপুর চিড়িয়াখানা থেকে দু’দিন পর উদ্ধার করেছে র‌্যাব। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা অপহরণকারীর মূল হোতা মাহফুজুর রহমান (রবিন) ও তার আপন ভাই আল-আমিন রানাকে গ্রেপ্তার করেছে। র‌্যাব-১১, সিপিএসসি এর এএসপি আলেপ উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি দল অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে শিশুটিকে উদ্ধার করে। জিহাদকে অপহরণ করে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।
বুধবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত র‌্যাব-১১ এর সদর দপ্তরে আয়োজিত এক প্রেস বিফ্রিংয়ে র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক (সিও) লেঃ কর্ণেল আনোয়ার লতিফ খান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
র‌্যাব জানায়, নরসিংদীর সদর থানার মাছিমপুর (সাহেব প্রতাপ) এলাকার বাসিন্দা আলমগীর ওরফে আলম দীর্ঘদিন ধরে জর্ডান প্রবাসী। তার শিশু পুত্র জিহাদকে নিয়ে তার স্ত্রী গ্রামের বাড়িতে বসবাস করে। জিহাদের বাবা বিদেশে থাকার সুযোগে অপহরণকারী মাহফুজুর রহমান (রবিন) পপি আক্তার সাথি নামে এক মহিলাকে স্ত্রী সাজিয়ে ৪ মাস আগে জিহাদের বাসার পাশেই বাসা ভাড়া নেয়। এরপর জিহাদের পরিবারের সঙ্গে সখ্য গড়ে তুলে। তারা জিহাদকে অপহরণের পরিকল্পনা করে। এবং জিহাদকে বাবা-মার মতো লোক দেখানো আদর-যতœ করতে থাকে। এভাবে দীর্ঘ চার মাস তারা শিশুটিকে বসে আনে। এক পর্যায়ে ওই শিশুটি রবিন ও সাথিকে বাবা-মা ডাকতে শুরু করে। এরপর সবার সামনে দিয়ে বেড়ানোর কথা বলে রবিন ও সাথি গত রোববার কৌশলে জিহাদকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে অপহরণকারী রবিন জিহাদের পরিবারের কাছে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। একদিন Siddhirgonj Photo_02) 23-9-2015পর রবিন তার বড় ভাই আল-আমিন রানার গাজীপুরের বাসায় শিশুটিকে নিয়ে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনায় জিহাদের পরিবার নরসিংদী থানায় একটি জিডি করেন। পরে অপহরণের বিষয়ে জিহাদের পরিবার র‌্যাব-১১ এর কার্যালয়ে এসে অভিযোগ দায়ের করে। মঙ্গলবার অপহৃতের পরিবার বিকাশের মাধ্যমে রবিনকে ২৫ হাজার টাকা পাঠায়। বিকাশ নম্বর ও মোবাইল ফোন ট্রেকিং করে র‌্যাব সদস্যারা অপহরণকারীর অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়। মঙ্গলবার বিকেলে রবিন ও তার বড় ভাই রানা অপহৃত জিহাদকে নিয়ে ঢাকার মিরপুর চিড়িয়াখানা বেড়াতে নিয়ে আসে। এ সময় র‌্যাব সদস্যারা শিশুটিকে উদ্ধার করে ও অপহৃত দু’ ভাই রবিন ও রানাকে গ্রেপ্তার করে।
র‌্যাব আরও জানায়, অপহরণকারী রবিন ২০ হাজার টাকার চুক্তিতে সাথিকে স্ত্রী সাজিয়ে তার সহযোগীতায় অপহরণের ঘটনাটি ঘটনায়। জিহাদকে অপহরণের পর সাথিকে বিদায় করে দেয়। এরপর থেকে সাথি পলাতক রয়েছে। র‌্যাব আরও জানায়, অপহরণের ঘটনাটি সু-পরিকল্পিত। জিহাদকে তার মায়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ অপহরণের ঘটনায় জিহাতের চাচা শামসুল হক বাদী হয়ে নরসিংদী থানায় মামলা দায়ের করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here