বান্দরবান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা, বিপাকে ব্যবসায়ী-পর্যটক

0
3

বান্দরবান(বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): সুষ্ঠ নির্বাচন ও নিরাপত্তার স্বার্থে আগামী ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারী পর্যন্ত ৫ দিন আবাসিক হোটেলগুলোতে বহিরাগতদের আগমনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বান্দরবানের স্থানীয় প্রশাসন।
আগামী ৩০ ডিসেম্বর পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু জাফর স্বাক্ষরিত একটি পত্রে বৃহস্পতিবার বহিরাগতদের প্রবেশে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।
এদিকে হঠাৎ এ নিষেধাজ্ঞায় বেকায়দায় পড়েছেন বান্দরবানে প্রায় একমাস আগে বুকিং দেওয়া গাড়ীর টিকেট সংগ্রহকারী পর্যটক ও স্থানীয় আবাসিক হোটেলগুলোর মালিকরা।
ব্যবসায়ীরা জানায়, শীতের সময়ে বান্দরবানে পর্যটকদের আগমন ঘটে প্রতিবছর। দেশী-বিদেশী হাজারো পর্যটকে মুখরিত এখন বান্দরবানের দর্শণীয় স্থানগুলো। কিন্তু আবাসিক হোটেল, মোটেল, রিসোর্ট এবং গেস্টহাউজগুলোতে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়েছে, আগামী ২৮ ডিসেম্বর দিবাগত মধ্যরাত থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত টানা ৫দিন আরোপিত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।
এ দিকে আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে বান্দরবানে পর্যটন শিল্পে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। নিষেধাজ্ঞার কারণে স্থানীয় ট্যুরিজম ব্যবসায়ীদের গড়ে প্রতিদিন প্রায় ১ কোটি টাকা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হবেন।
আগামী ৩১ ডিসেম্বর ও ১ জানুয়ারীর জন্য প্রায় একমাস আগে থেকেই জেলা শহরের আবাসিক হোটেল, মোটেল, রিসোর্ট, গেষ্টহাউজগুলো বুকিং মানি পাঠিয়ে রুম বুকিং এবং যাত্রীবাহী গাড়ীগুলোর অগ্রীম টিকেট সংগ্রহ করে রেখেছেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ভ্রমণপিপাসু পর্যটকেরা। অগ্রীম বুকিংয়ের টাকা নিয়ে অনেকে আবাসিক হোটেলগুলোর উন্নয়নে ব্যয়ও করে ফেলেছেন।
ঢাকার পর্যটক রাহুল চক্রবর্তী ও রাজশাহীর পর্যটক আলম দিদার বলেন, অফিসের ছুটি এবং বাচ্চাদের স্কুল বন্ধ থাকার সময়টায় বান্দরবান বেড়াতে যাওয়ার প্রোগ্রাম করেছি। অনেক চেষ্ঠা করে অগ্রীম বাসের টিকেট সংগ্রহ করে বান্দরবানে আবাসিক হোটেলে অগ্রীম টাকা পাঠিয়ে রুম বুকিং করেছি। সব প্রস্তুতি শেষ বাচ্চাদের নিয়ে বেড়াতে যাবো বান্দরবান। পর্যটন শহরে এমন নিষেধাজ্ঞা কোনোভাবেই যুক্তি সঙ্গত নয়।
পর্যটক ও ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে প্রশাসন নিষেধাজ্ঞা শিথিলের দাবি জানান তারা।
জেলা আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি অমল কান্তি দাশ ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম বলেন, জেলা শহরের ৪৫টি আবাসিক হোটেল, মোটেল, গেষ্টহাউজ, রিসোর্টে প্রায় একমাস আগেই ৩১ ডিসেম্বর ও ১ জানুয়ারী সবগুলো রুম বুকিং করেছে পর্যটকরা। অগ্রীম বুকিংয়ের টাকাও সংগ্রহ করেছেন ব্যবসায়ীরা। পর্যটকদের অনেকে গাড়ীর অগ্রীম টিকেটও সংগ্রহ করেছেন।
তারা জানান, পাঁচদিন নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকলে বান্দরবানে পর্যটন খাতে প্রায় কয়েক কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হবে ব্যবসায়ীরা। পর্যটক ও ব্যবসায়ীদের লোকসানের কথা চিন্তা করে নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা কমানোর অনুরোধ করা হয়েছে।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার আবু জাফর বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচন ও নিরাপত্তার স্বার্থে বহিরাগতদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। আগামী ২৮ ডিসেম্বর দিবাগত মধ্যরাত থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত টানা ৫দিন আবাসিক হোটেলগুলোতে বহিরাগতদের রুম ভাড়া না দিতে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘তবে নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে পর্যটন শিল্পের স্বার্থে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হবে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার সময়েও হাইওয়ে সড়ক ও পৌর এলাকার বাহিরের অবকাঠামোগুলো ব্যবহার করতে পারবে পর্যটকরা।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here