রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে অধরা জয় পেল সিলেট

0
11

ক্রীড়া ডেস্ক(বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) প্রথম জয়ের দেখা পেল সিলেট সুপারস্টার্স। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে ইনিংসের দুই বল হাতে রেখে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বিপক্ষে জয় পায় মুশফিকবাহিনী। ঢাকা পর্বের সবকটি ম্যাচেই হারা সিলেটের জন্য মাশরাফিদের বিপক্ষে পাওয়া ৪ উইকেটের জয়টি মান বাঁচানোর ম্যাচ হিসেবেই থাকবে। ইংলিশ তারকা রবি বোপারার অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সেই অধরা জয়ের দেখা পেল দলটি।

চট্টগ্রাম পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান করেছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা কুমিল্লা দুই ওপেনার লিটন দাশ ও ইমরুল কায়েসের ৫৬ রানের জুটিতে শুরুটা করেছিল দারুণ। পরে ৬৬ রানে ৩ উইকেট হারালেও যাইদির হাফসেঞ্চুরিতে লড়াই করার পুঁজি জোগায় দলটি। দলটির পক্ষে লিটন দাশ ৪২, ইমরুল ৪৮, যাইদি অপরাজিত ৫৩ ও অধিনায়ক মাশরাফি ১০ রানে অপরাজিত ছিলেন। অন্যদিকে সিলেটের পক্ষে ৪টি উইকেট নিয়েছেন রবি বোপারা।

১৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা সিলেটের ইনিংসটি ছিল শ্বাসরুদ্ধ উত্তেজনার, জয়-পরাজয়ের সম্ভাবনায় ক্ষণে ক্ষণে রং বদলিয়েছে ম্যাচটি। দলীয় ৫২ রানে সিলেটের ২ উইকেট ফিরিয়ে ম্যাচটি কুমিল্লার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গিয়েছিলেন পেসার আবু হায়দার। কিন্তু এরপরই মুশফিকুর রহিমের ৪৭ রান ও রবি বোপারার ৫০ রানের ইনিংসে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই চলে যায় সিলেটের হাতে।

সমীকরণ এমন সহজ হয়ে গিয়েছিল যে, শেষ ওভারে জয়ের জন্য সিলেটের প্রয়োজন ছিল মাত্র ৪ রান। কিন্তু সে সমীকরণকেই মুহূর্তে অনিশ্চয়তায় ফেলে দেন পেসার আবু হায়দার। ২০তম ওভারের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে তিনি সাজঘরে ফিরান সিলেটের দুই ব্যাটসম্যান রবি বোপারা ও জয়াসুরিয়াকে। শেষ ৩ বলে জয়ের জন্য তখন সিলেটের প্রয়োজন ৩ রান, মুশফিকবাহিনীর শরীরী ভাষাই তখন বলে দেয় ম্যাচটি আসলে কতটুকু কঠিন হয়ে ওঠেছে। কিন্তু রুদ্ধশ্বাস ম্যাচের উত্তেজনার পারদ মুহূর্তেই নিভিয়ে দিয়ে চতুর্থ বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন নাজমুল হোসেন মিলন। আর তাতেই অধরা জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সিলেট। আর বল হাতে ৪ উইকেট ও ব্যাট হাতে ৫০ রান করে জয়ের মূল কারিগরি বোপারার হাতে ওঠে ম্যাচসেরার পুরস্কার।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ম্যাচটি শুরু হয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here