নতুন নতুন বাজার খুঁজতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

0
4

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): বহির্বিশ্বে বাংলাদেশী পণ্যের চাহিদা শনাক্তকরণের পাশাপাশি নতুন নতুন বাজার খোঁজার জন্য উদ্যোক্তা ও সরকারি সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু আর্ন্তজাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুক্রবার বিকেলে মাসব্যাপী ঢাকা আর্ন্তজাতিক বাণিজ্যমেলা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বে নতুন নতুন বাজার খুঁজতে হবে। কোন্ দেশে কোন্ পণ্যের চাহিদা আছে তা বিশ্লেষণ করতে হবে ব্যবসায়ীদের। সে অনুযায়ী রফতানিযোগ্য পণ্য উৎপাদনে দৃষ্টি দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের পণ্যের অনেক সুনাম রয়েছে। পাট এক সময় রফতানি হতো বিভিন্ন দেশে। মসলিন এক সময় খুব নামকরা ছিল। তাই আমাদের এখন যেসব পণ্য আছে, সেগুলো বহুমুখীকরণ করতে হবে। আমাদের নতুন নতুন বাজার খুঁজতে হবে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদসহ দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

এবার বাণিজ্যমেলায় বিশ্বের ২১টি দেশ অংশগ্রহণ করছে। এর মধ্যে নতুন হিসেবে অংশ নিচ্ছে মরিশাস, ঘানা, নেপালসহ সাতটি দেশ। এছাড়া বিগত বছরে অংশগ্রহণ করা দেশগুলোর মধ্যে থাকছে— ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নেপাল, হংকং, জাপান ও আরব আমিরাত।

এ বছর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় ১৩ ক্যাটাগরিতে মোট ৫৫৩টি স্টল ও প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন ৬০টি, জেনারেল প্যাভিলিয়ন ১০টি, রিজার্ভ প্যাভিলিয়ন তিনটি, ফরেন প্যাভিলিয়ন ৩৮টি রয়েছে। এছাড়া থাকছে প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন ৩৬টি, জেনারেল মিনি প্যাভিলিয়ন ১৩টি, রিজার্ভ মিনি প্যাভিলিয়ন ছয়টি, ফুড স্টল ২৫টি ও রেস্টুরেন্ট পাঁচটি।

গত বছরের মতো এবারো মেলার গেট হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলের মতো। মেলায় এবারো থাকছে বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন, মা ও শিশুকেন্দ্র, শিশুপার্ক, ইকোপার্ক, ই-শপ, ই-পার্ক, ফুডকোর্ট, পর্যাপ্ত টয়লেট, এটিএম বুথ, মসজিদ, পোস্ট অফিস, প্রতিবন্ধীদের জন্য থাকছে অটিজম সেন্টার, মাদার কেয়ার সেন্টার, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র। এছাড়া ভোক্তাদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও অভিযোগ নিষ্পত্তির জন্য জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকছে।

নিরাপত্তার স্বার্থে একই সঙ্গে মেলায় থাকবে পুলিশ, র‌্যাব ও আনসারের পাশাপাশি বিজিবি সদস্য। অগ্নি দুর্ঘটনা এড়াতে থাকবে ফায়ার ব্রিগেডের ব্যবস্থা। এছাড়া মেলার চারপাশে থাকছে ১০০টি সিসি টিভি।

মেলায় প্রধান প্রধান পণ্য তালিকায় থাকছে- মেশিনারিজ, কার্পেট, কসমেটিক্স, ইলেক্ট্রিক্যাল, পাটজাত পণ্য, লেদার, স্পোর্টস গুডস, জুয়েলারিসামগ্রী প্রভৃতি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) আয়োজিত বাণিজ্যমেলা ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত দশনার্থীর জন্য খোলা থাকবে। মেলায় প্রবেশমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে ৩০ টাকা ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here