নিজেকে ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’ ঘোষণা রওশনের

0
6

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): ছোট ভাই জি এম কাদেরকে পার্টির কো-চেয়ারম্যান নিযুক্ত করায় এরশাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পাল্টা কমিটি গঠন করেছেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশন এরশাদ।
নিজেকে জাপার নতুন ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’ হিসেবে ঘোষণা করেন তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ।
রওশন এরশাদের গুলশানের বাসায় সোমবার রাতে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদীয় দলের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেন রওশন এরশাদ। সভা শেষে সাংবাদিকদের বিষয়টি জানান জাপার মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। তবে তিনি সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেননি।
প্রসঙ্গত, ১৭ জানুয়ারি রংপুরে ছোট ভাই জি এম কাদেরকে ‘কো-চেয়ারম্যান’ ঘোষণা করেন দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
সংবাদ সম্মেলনে জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘গঠনতন্ত্রে কো-চেয়ারম্যান বলে কোনো পদ নেই। গতকাল (১৭ জানুয়ারি) পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রেসিডিয়ামের সঙ্গে কোনো আলোচনা না করে তার আপন ভাই জি এম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান ও তার উত্তরাধিকার হিসেবে ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে পার্টির সম্মেলনের জন্য জি এম কাদেরকে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সভাপতি ও রুহুল আমিন হাওলাদারকে সদস্য সচিব হিসেবে ঘোষণা দেন। এটা গঠনতন্ত্রের সম্পূর্ণ পরিপন্থী।’
তিনি বলেন, ‘পার্টির গঠনতন্ত্রের ৩৯ ধারা বলে কো-চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি (এরশাদ) কাউকে ঘোষণা দিতে পারেন না। তার এই ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে পার্টির প্রেসিডিয়াম, সংসদ সদস্য ও পার্টির হাজার হাজার কর্মীদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে।’
বাবলু আরও বলেন, ‘জি এম কাদের দিনাজপুরের সভায় সকল সংসদ সদস্যকে পদত্যাগ এবং বর্তমান পার্লামেন্টকে অবৈধ ঘোষণা করতে হবে বলে ঘোষণা দেন। তার এই বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’
তিনি বলেন, ‘এই বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশন এরশাদকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বানানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।’
আনুষ্ঠানিক এই ঘোষণার আগে জাপার নেতাদের নিয়ে কয়েক দফা রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদের বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ। সোমবার সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে এই বৈঠক চলে রাত ৮টা পর্যন্ত। এর আগে, কয়েক দফা বৈঠক করেন রওশন এরশাদ।
বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- জাপার মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, পানিসম্পদমন্ত্রী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু, ফখরুল ইমাম এমপি, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা, কাজী ফিরোজ রশিদ, তাজুল ইসলাম চৌধুরী, আবুল কাশেম, খুরশীদ জাহান হক এমপি, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম ফয়সল চিশতী, লিলি চৌধুরী, রওশন আরা মান্নান, এ টি এম তাজ রহমান, গোলাম কিবরিয়া টিপু, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ওমর ফারুক এমপি, সেলিম উদ্দিন এমপি, মোহাম্মদ নোমান এমপি, আমির হোসেন এমপি, এহিয়া চৌধুরী এমপি, নুরুল ইসলাম মিলন এমপি প্রমুখ। তবে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here