গ্রামীণফোনের ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

0
4

রাজশাহী (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): রাজশাহীতে গ্রামীণফোনের পাঁচ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জুলফিকার উল্লাহর আদালতে গ্রামীণফোনের গ্রাহক হোসেন আলী পিয়ারা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।
মামলাটি আমলে নিয়ে আগামী ৬ এপ্রিল আসামিদের আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন, গ্রামীণফোনের সিনিয়র কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজার সোহানুর রহমান, রাজশাহী অফিসের লিড ম্যানেজার মোহাম্মদ শহিদুল আলম (রিজিওনাল সেলস অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন অ্যান্ড রিটেলস সেলস কর্মাশিয়াল ডিভিশন), চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার রাজীব শেঠী, চিফ হিউম্যান রিসোর্স অফিসার কাজী মোহাম্মদ শাহিদ এবং ঢাকার বারিধারা অফিসের চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসাইন। আসামিদের বিরুদ্ধে দ-বিধির ৪০৬, ৪১৮, ৫০৬ (২) ধারার অভিযোগ আনা হয়েছে।

মামলার আর্জিতে বলা হয়, বাদী হোসেন আলীর ০১৭১৮৩১৪৯৪৪ মোবাইল নম্বরে ফ্ল্যাক্সিলোড অথবা রিচার্জের মাধ্যমে টাকা জমার পর কোনো কল বা অন্য কোনোভাবে ব্যবহার ছাড়াই প্রতিদিনই টাকা কেটে নেওয়া হয়। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ১০০ টাকা রিচার্জের পর বিষয়টি নিশ্চিত হলে হোসেন আলী রাজশাহীর আলুপট্টিস্থ গ্রামীণফোনের কাস্টমার কেয়ার অফিসের কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানান। অফিসের কর্মকর্তারা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন। কিন্তু এরপরও একইভাবে টাকা কেটে নেওয়া হচ্ছিল।

একই সমস্যা নিয়ে এর আগে অনেকবার কাস্টমার কেয়ারে গেলে একই কথা জানানো হয়। এ বিষয়ে ১৮ ফেব্রুয়ারি কাস্টমার কেয়ার অফিসের গিয়ে কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজার সোহানুর রহমানকে টাকা কেটে নেওয়া ও প্রতারণার বিষয়টি জানালে তিনি হোসেন আলীর ওপর ক্ষিপ্ত হন এবং ‘এটা আমাদের ব্যবসা, যা পারেন করেন’ এই বলে বিভিন্ন হুমকি দেন।

এ বিষয়ে অপর আসামিদের জানালে তারাও বিষয়টি এড়িয়ে যান। এরপর হোসেন আলী সেখানে থেকে বেরিয়ে এলে গ্রামীণফোনের কয়েকজন অজ্ঞাতনামা কর্মচারী তাকে পাশের একটি জায়গায় নিয়ে গিয়ে এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি করলে প্রাণনাশের হুমকি দেন। বিষয়টি নিয়ে আরো আটজন গ্রামীণফোন গ্রাহকের সঙ্গে কথা বললে তারাও একইভাবে টাকা কর্তনের বিষয়টি হোসেন আলীকে জানান বলে আর্জিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here