‘দুই মন্ত্রীর বক্তব্য বিচার ব্যবস্থার ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ’

0
11

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের দুই মন্ত্রীর বক্তব্যকে চরম ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও আদালত অবমাননার শামিল বলে মনে করেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘এই ধরনের বক্তব্য বিচার ব্যবস্থার ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ। মাননীয় প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে মন্ত্রীদ্বয়ের বক্তব্য বর্তমান অবৈধ সরকারের একদলীয় শাসনের যাত্রাপথে চূড়ান্তভাবে সব সীমানা লঙ্ঘন করল।’

রোববার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন।

গতকাল শনিবার সরকারের দুই মন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির সরে যাওয়া উচিৎ। তিনি বিএনপি-জামায়াতের সুরে কথা বলছেন।`’

রিজভী বলেন, ‘তাদের বক্তব্য চরম ঔদ্ধত্যপূর্ণ, হুমকিমূলক, রাজনৈতিক মাস্তানি এবং আদালত অবমাননার শামিল। প্রধান বিচারপতির সরে যাওয়া উচিৎ, তিনি বিএনপি-জামায়াতের সুরে কথা বলছেন, বলে তারা যে মন্তব্য করেছেন তা রাষ্ট্রের একটি স্বতন্ত্র অঙ্গ হিসেবে বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ওপর অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর নগ্ন হস্তক্ষেপ।’

তিনি বলেন, ‘এসব বক্তব্যে আবারো প্রমাণিত হলো, ৭৫ এর একদলীয় বাকশাল তার সকল আগ্রাসী শক্তি নিয়ে পুনর্জন্ম লাভ করেছে। রাষ্ট্রের এই সমস্ত অঙ্গের পরিচালকরা যখনই স্বাধীন সত্তা নিয়ে কাজ করেছেন বা কথা বলেছেন, তখন তাদেরকেও সরকারের রোষানলে পড়তে হয়েছে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আইনের শাসনের পক্ষে কারো ন্যায়সঙ্গত বলা কথা শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে গেলেই তখন তারা সকল মাত্রা অতিক্রম করে তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। মাননীয় প্রধান বিচারপতির ওপর এই আক্রমণ আইন অমান্যকারী অপরাধী গ্যাংদের সমতুল্য। এখন বিচার বিভাগকে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে না নিতে পেরে আওয়ামী মন্ত্রী নেতারা হুমকি ও ধমকের আশ্রয় নিয়েছেন।’

প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে মন্ত্রীদ্বয়ের বক্তব্য ধৃষ্টতাপূর্ণ ও দুরভিসন্ধিমূলক অভিহিত করে তিনি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির অর্থনৈতিকবিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহদফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here