বাংলাদেশের পথ সুগম করে ফাইনালে ভারত

0
3

(বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) ডেস্ক : এশিয়া কাপ টি২০ ক্রিকেটের ফাইনালে পৌঁছে গেল ভারত। মঙ্গলবার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। সেই সঙ্গে স্বাগতিক বাংলাদেশের জন্য ফাইনালে খেলার পথও সুগম করে দিল তারা। বুধবার রাউন্ড রবিন লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানকে হারাতে পারলেই ফাইনালের টিকেট পেয়ে যাবে মাশরাফি বিন মর্তুজার বাংলাদেশ। কেননা, ভারতের কাছে হারের পর শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৩ ম্যাচে ২ পয়েন্ট। অন্যদিকে, পাকিস্তানকে হারাতে পারলে বাংলাদেশের হবে ৪ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট। আর পাকিস্তানের হবে ৩ ম্যাচে ২ পয়েন্ট। ফলে নিজেদের শেষ ম্যাচে পাকিস্তান বা শ্রীলঙ্কা ম্যাচ জিতলেও তাতে করে ফাইনালে খেলার সুযোগ পাবে না। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাতে তাই নিজেদের ফাইনাল নিশ্চিত করার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশের ফাইনালে খেলার পথটাও সুগম করে দিয়েছে ধোনিবাহিনী। নিজেদের টানা ৩ ম্যাচেই জয় পেয়েছে তারা।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে লঙ্কানরা। পরে আর তেমন ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি তাদের ব্যাটসম্যানরা। ইনিংসের ২.২ ওভারে আশীষ নেহরার বলে ধোনির ক্যাচে পরিণত হন শ্রীলঙ্কার ওপেনার দিনেশ চান্দিমাল, ১১ বলে ৪ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি। পরের ওভারের চতুর্থ বলে বুমরাহ’র বলে ধোনিকে ক্যাচ দিয়েছেন শিহান জয়াসুরিয়া।

তিলকরত্নে দিলশান ও চামারা কাপুগেদারা দলের বিপদ কাটানোর চেষ্টা করলেও তাদের প্রতিরোধও স্থায়ী হয়নি। ৬.১ ওভারে পান্ডিয়ার বলে অশ্বিনের তালুবন্দি হন ওপেনার দিলশান। তিনি ১৬ বলে ১৮ রান সংগ্রহ করেছেন। পরে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও কাপুগেদারা বেশ কিছুক্ষণ উইকেটে থাকলেও রানের গতি বাড়াতে পারেননি। ১১তম ওভারের শেষ বলে এ জুটি ভাঙ্গেন পান্ডিয়া। আউট হওয়ার আগে ১৯ বলে ১৮ রান করেছেন ম্যাথুস।

পরে কাপুগেদারা ও সিরিওয়ার্দানা ৫৩ রানের জুটি বেঁধে শ্রীলঙ্কাকে সম্মানজনক পুঁজির সংগ্রহের দিকে নিয়ে যান। কিন্তু ১৭তম ওভারে সিরিওয়ার্দানা ও সানাকা আউট হয়ে যান। ১৮তম ওভারে ব্যক্তিগত ৩০ রানে আউট হয়ে যান কাপুগেদারাও। শেষদিকে পেরেরার ১৭ রান ও কুলাসেকারার ১২ রানে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৮ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা। ফলে ফাইনালের ছাড়পত্র পেতে ভারতের টার্গেট দাঁড়ায় ১৩৯ রান

জয়ের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই দুই উইকেটের পতন ঘটে ভারতের। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে কুলাসেকারার বলে চান্দিমালের তালুবন্দি হন ভারতের ওপেনার শেখর ধাওয়ান। পরে চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে আবারও ভারতের ব্যাটিং লাইনে আঘাত হানেন কুলাসেকারা। এবার কাপুগেদারাকে ক্যাচ দেন রোহিত শর্মা। তবে সুরেশ রায়না ও বিরাট কোহলি প্রাথমিক বিপর্যয় সামলেছেন। ব্যক্তিগত ২৫ রানে আউট হয়েছেন রায়না, দলীয় ৭১ রানে। তবে বিরাট কোহলি শক্ত হাতেই হাল ধরেছেন। আর তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন যুবরাজ সিং। মাত্র ১৮ বলে ৩৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন যুবরাজ। তিনি যখন আউট হন তখন জয় থেকে ১৪ রানে দূরে ভারত। তার জায়গায় ব্যাট করতে নেমে এক ছক্কাসহ ৪ বলে ৭ রান করে কাজটা সহজ করে দিয়েছেন ভারত অধিনায়ক ধোনি। আর ইনিংসের ৪ বল বাকি থাকতে বাউন্ডারি মেরে ফিনিশিং টাচটা দিয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতা বিরাট কোহলি। ৪৭ বলে ৫৬ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here