নারায়ণগঞ্জে স্ত্রীর পরকীয়ায় বাঁধা দেয়ায় স্বামী খুন

0
4

নারায়ণগঞ্জ (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার মদনপুরে স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমে বাধা দেওয়ায় স্বামীকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার সকালে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত বাদল মিয়া বন্দরের মদনপুর চাঁনপুর এলাকার মৃত পান্ডব আলীর ছেলে। তিনি তিন সন্তানের জনক ছিলেন।

বন্দর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহরের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। লাশের গলায় হাতের আঙুলের ছাপের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্ত রির্পোট পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিহত বাদল মিয়ার মা জানান, তার ছেলের বৌ জিয়াসমিনের সঙ্গে স্থানীয় পল্লী বিদ্যুতের কর্মচারী মজিবরের পরকীয়া প্রেম ছিল। এ নিয়ে বাড়িতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতো। পরকীয়া বাধা দেওয়ার কারণে তার অসুস্থ ছেলেকে গলা টিপে হত্যা করেছে স্ত্রী জিয়াসমিন।

এ ব্যাপারে ৩ সন্তানের জননী জিয়াসমিন  জানান, তার সঙ্গে মজিবরের সম্পর্ক ছিল। মাঝে মধ্যে মোবাইলে কথা হতো। এর বেশি কিছু নয়।

গত রাতে অসুস্থতার কারণে তার স্বামী বাদল মারা গেছে বলে তিনি দাবি করেন।

পরকীয়া প্রেমিক মজিবরের স্ত্রী নাজমা বেগম জানান, তার স্বামী মজিবর একটি বৈদ্যুতিক মিটার দিতে এসে বাদলের স্ত্রী জিয়াসমিনের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। তার স্বামী মদনপুর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে চাকরির সুযোগে জিয়াসমিনের বাড়িতে দুপুরে খাবার খেত। এতে করে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়ে ওঠে। গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর জিয়াসমিন ও মজিবর বাইসটেঙ্গি এলাকার কাজী অফিসে গিয়ে বিয়ে করেন। তাদের কাবিন বই নং ১১/১৪ পৃষ্ঠা নং ৪২। বাদল মারা গেছে শুনে তার স্বামী মজিবর পালিয়ে গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here