মামাকে হত্যার দায়ে ভাগ্নের মৃত্যুদন্ড

0
3

পিরোজপুর (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): পিরোজপুরে মামা হেমলাল শীলকে হত্যার দায়ে ভাগ্নে নিবাস শীলকে (৩০) ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। আজ বুধবার দুপুরে পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. গোলাম কিবরিয়া এ আদেশ দেন। আদেশে আসামি নিবাস শীলকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড এবং বিশ হাজার টাকা জরিমানা দেওয়া হয়েছে।

এসময় আদালত কক্ষের বাইরে উপস্থিত নিবাসের স্ত্রী শিখা রানী ও সাড়ে চার বছরের শিশু কন্যা নিশি কান্নায় ভেঙে পড়েন।

আদালত ও মামলা সুত্রে জানা যায়, পিরোজপুর সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের বাসিন্দা মৃত সুখরঞ্জন শীলের ছেলে নিবাস চন্দ্র শীল ২০১৩ সালের ৮ সেপ্টেম্বর নাজিরপুর উপজেলার ষোলশত গ্রামের মামা হেমলাল শীলের বাড়িতে গিয়ে তার কাছে মায়ের পাওনা বাবদ ১ লাখ টাকা দাবী করেন। মামা এ টাকা দিতে অস্বীকার করলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ভাগ্নে নিবাস ছুরি দিয়ে মামা হেমলালকে উপর্যপুরি আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত হেমলালের ছেল শ্যামল শীল বাদী হয়ে পরদিন নিবাস চন্দ্র শীলকে একমাত্র আসামি করে নাজিরপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় তদন্ত শেষে তদন্ত কর্মকর্তা নিবাসের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দায়ের করলে মামলাটি বিচারের জন্য পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে প্রেরন করা হয়।

আটক নিবাস আদালতে হত্যার কথা স্বীকার করে জবানবন্দী দিলে ও সাক্ষীদের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে নিবাসের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত হলে জেলা ও দায়রা জজ আদালত নিবাস চন্দ্রের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।

সরকার পক্ষে এ মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি খান মো. আলাউদ্দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here