ছাত্রলীগ নেত্রীকে লাঞ্ছনা : প্রতিমন্ত্রীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

0
2

রংপুর (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক সুমনা আক্তার লিলিকে (২৭) শ্লীলতাহানি ও শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে এলজিইিড প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গার ছোট ভাই মহিউল আহম্মেদ মহির (৫০) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে রংপুর শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল সংলগ্ন আমের আড়তে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় লিলি বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
লিলি রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার ইকরচালি গ্রামের আইয়ুব আলীর মেয়ে এবং ঢাকা ইডেন কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী।
মামলা সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে লিলি তার বড় ভাই তারাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শাহীদ বকশী (৩০) ও তারাগঞ্জ উপজেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান তুহিনহসহ (২৮) রংপুরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল সংলগ্ন আমের আড়তে আম কিনতে যান। এসময় এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গার ছোট ভাই ও ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতির রংপুর জেলার সভাপতি মহিউল আহম্মেদ মহি মোটরসাইকেল নিয়ে ওই পথ দিয়ে যাচ্ছিলেন।
একপর্যায়ে মহি রাস্তার সাইড নেয়ার জন্য তার মোটরসাইকেলের হর্ন দিলে তা আম কিনতে আসা লিলি ও বকশীর কর্ণপাত না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন মহি। এসময় বকশী নিজের রাজনৈতিক পরিচয় দিয়ে হর্ন না শোনার বিষয়টি মহির কাছে স্বীকার করেন। এতে মহি আরও ক্ষিপ্ত হয়ে বকশীকে গালিগালাজ করে এলাপাতাথারী মারধর শুরু করেন। পরে লিলি এগিয়ে গিয়ে তার রাজনৈতিক পরিচয় দিলে মহি আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এবং লিলিকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করাসহ শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
এদিকে ঘটনাটি স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তারা কোতয়ালী থানায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন।
এসময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু শ্লোগান দিতে থাকেন এবং অবিলম্বে মহিকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান। পরে খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল আতাউর রহমান থানায় গিয়ে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের শান্ত করেন।
এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে লিলি বাদী হয়ে মহিকে আসামি করে কোতয়ালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।
অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতয়ালী থানা পুলিাশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম জাহিদুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here