জঙ্গি হামলার গুজবে আতঙ্কিত হবেন না

0
4

ডেস্ক সংবাদ (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) :  সম্প্রতি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও শপিংমলে জঙ্গি হামলার গুজব ছড়ানোর বিষয়ে বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে একটি বক্তব্য পাঠিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। বক্তব্যটি হুবুহু তুলে ধরা হল-
সম্প্রতি ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং অন্যান্যভাবে ছড়ানো জঙ্গিবাদের গুজবকে কেন্দ্র করে জনসাধারণের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক, নিরাপত্তাহীনতা ও বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে বলে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের প্রতীয়মান হয়েছে। এ বিষয়ে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের বক্তব্য নিম্নরূপ:-
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অন্যান্যভাবে শপিংমল, গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি অফিস ভবন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন জনসমাগমস্থলে জঙ্গি হামলার খবর নিতান্তই গুজব, বিভ্রান্তি। জঙ্গিবাদের এ ধরনের গুজবে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য জনসাধারণের প্রতি পুলিশ সদর দফতর অনুরোধ জানাচ্ছে।
জনগণের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার মতো কোন আশঙ্কা থাকলে/পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে পুলিশ/আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকেই জনগণকে সচেতন/সতর্ক করাসহ পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
সম্প্রতি গুলশান ও শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাসহ অন্যান্য ঘটনায় পুলিশ সব ধরনের আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
ইতোমধ্যে গুলশান ও শোলাকিয়ার ঘটনা সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, যা ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনে সহায়ক হবে। পুলিশসহ অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে জঙ্গিদের বেশকিছু আস্তানা শনাক্ত এবং এ বিষয়ে অন্যান্য আইনানুগ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
জঙ্গি কার্যক্রমের জন্য কোন ব্যক্তি নিখোঁজ থাকলে অথবা কারো বিষয়ে জঙ্গি কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হওয়া সম্পর্কে সন্দেহ হলে সে বিষয়ে তথ্য নিকটস্থ থানা/আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানোর জন্য পুলিশ সদর দফতর অনুরোধ জানাচ্ছে।
ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনমনে অহেতুক ভীতি ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি হতে পারে এজাতীয় কোন ধরনের গুজব ছড়ানো থেকে বিরত থাকার জন্য সকলকে অনুরোধ জানানো হচ্ছে। কোন ব্যক্তি যদি এ ধরনের গুজব/বিভ্রান্তি ছড়িয়ে জনমনে ভীতি সৃষ্টি ও জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করে তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
বাংলাদেশ পুলিশ ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শান্তিপ্রিয় দেশপ্রেমিক জনসাধারণকে সঙ্গে নিয়ে যে কোনো অরাজক পরিস্থিতি মোকাবেলায় বদ্ধপরিকর। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসমুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা দেশের সকল সম্মানিত নাগরিকের সহযোগিতা কামনা করি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here