জাপা এমপি হান্নানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন

0
3

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার মামলায় জাতীয় পার্টির ময়মনসিংহ-৭ আসন (ত্রিশাল) থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য এম এ হান্নানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।
সংস্থার ধানমণ্ডির কার্যালয়ে সোমবার (১১ জুলাই) এক সংবাদ সম্মেলনে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধকালে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট, অপহরণ, নারী নির্যাতন, হত্যা ও লাশগুমের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধের ৫টি অভিযোগ আনা হয়েছে। এই তদন্ত প্রতিবেদন সোমবারই প্রসিকিউশনের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পরবর্তীতে প্রসিকিউশন তা ট্রাইব্যুনালে উপস্থাপন করবে।
২০১৫ সালের ২৮ জুলাই থেকে এম এ হান্নানের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত শুরু হয়। প্রায় এক বছর ধরে চলা এই তদন্ত শেষে সোমবার চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হল। তার বিরুদ্ধে এই মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছেন মোহাম্মাদ মতিউর রহমান।
তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এম এ হান্নানসহ এই ৮ অপরাধীর অপরাধ এলাকা ছিল ময়মনসিংহ ডাকবাংলো, ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হল এবং নিজ এলাকা ত্রিশাল।
তদন্ত চলাকালে ২০১৫ সালের ১ অক্টোবর গুলশানের নিজ বাড়ি থেকে এম এ হান্নানকে এবং ছেলে রফিক সাজ্জাদকে ওই এলাকার একটি অফিস থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। একইদিনে ওই মামলার আরও তিন আসামি ডা. খন্দকার গোলাম সাব্বির (৬৬), মিজানুর রহমান মিন্টু (৬০) ও হরমুজ আলীকে (৭০) ময়মনসিংহের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।
এর আগে বিচারপতি মো. আনোয়ারুল হক নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এম এ হান্নান ও তার ছেলেসহ মোট আট আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে।
মামলার অপর তিন আসামী পলাতক। তারা হলেন- ফখরুজ্জামান (৬১), আব্দুস সাত্তার (৬৪) ও খন্দকার গোলাম রব্বানী (৬৩)।
৮০ বছর বয়সী হান্নান জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীরও সদস্য। এর আগে মানবতাবিরোধী অপরাধে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল জব্বার ইঞ্জিনিয়ার এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ কায়সারের সাজা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here