ভর্তুকি, প্রণোদনা ও নগদ ঋণ খাতে ২৬,৭২৯ কোটি টাকা বরাদ্দ

0
12

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : চলতি অর্থবছরে (২০১৬-১৭) ভর্তুকি, প্রণোদনা ও নগদ ঋণ বাবদ ২৬ হাজার ৭২৯ কোটি টাকা ব্যয় করবে সরকার। এটা জিডিপির ১ দশমিক ৪ শতাংশ। গত অর্থবছরের মূল বাজেটে এ খাতে ব্যয়ের পরিমাণ ধরা হয়েছিল ২৫ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা। সংশোধিত বাজেটে এটা কাটছাঁট করে ১৮ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকায় নামিয়ে আনা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র জানায়, সংশোধিত বাজেটে কাটছাঁট করা হলেও চলতি অর্থবছরে খাদ্য খাতে ভর্তুকি প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা এবং রফতানি খাতে প্রণোদনা ১ হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে।
প্রাক্কলন অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে ভর্তুকি বাবদ ৪ হাজার ২২৯ কোটি টাকা, প্রণোদনা খাতে ১৩ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা এবং নগদ ঋণ খাতে ৯ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করবে সরকার।
ভর্তুকি ব্যয়ের মধ্যে খাদ্য খাতে ২ হাজার ৮২০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। গত অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছিল ১ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা এবং সংশোধিত বাজেটে এ খাতে ব্যয় ১ হাজার ৯৭৬ কোটি টাকা দেখানো হয়েছে।
এ ছাড়া চলতি অর্থবছরে অন্যান্য খাতে ভর্তুকি রাখা হয়েছে ১ হাজার ৪০৯ কোটি টাকা। গত অর্থবছরে এ খাতে সমপরিমাণ বরাদ্দ রাখা হলেও সংশোধিত বাজেটে এ খাতে ব্যয় দেখানো হয়েছে ৪০৯ কোটি টাকা।
প্রণোদনা খাতে চলতি অর্থবছরে কৃষি খাতে ৯ হাজার কোটি টাকা, রফতানি খাতে ৪ হাজার কোটি টাকা ও পাটজাত দ্রব্য খাতে ৫শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এর মধ্যে রফতানি খাতে প্রণোদনার পরিমাণ গতবারের চেয়ে ১ হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে। কৃষি খাতে প্রণোদনা বাবদ গত বছর ৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হলেও সংশোধিত বাজেটে এ খাতে ব্যয় ৭ হাজার কোটি টাকা দেখানো হয়েছে।
নগদ ঋণ খাতে চলতি অর্থবছরে ‘বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)-কে দেওয়া হবে ৬ হাজার কোটি টাকা। গত অর্থবছরে এ খাতে ৮ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হলেও এর বিপরীতে সংস্থাটিকে দেওয়া হয়েছে ৫ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা।
উল্লেখ্য, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বকেয়া ঋণের শীর্ষে রয়েছে পিডিবি। চলতি পঞ্জিকা বছরের ফেব্রুয়ারি শেষে পিডিবি’র দেনার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ১১ হাজার ৭৮ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। এর আগে ২০১৪ সালের ডিসেম্বর শেষে পিডিবির দেনার পরিমাণ ছিল ৭ হাজার ৬২০ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ ১৪ মাসে সংস্থাটির দেনা বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা। অন্যদিকে রাষ্ট্রায়ত্ত লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যেও পিডিবি শীর্ষে। চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে পিডিবির লোকসান প্রাক্কলন করা হয়েছে ৬ হাজার ২৩৩ কোটি ৪৯ লাখ টাকা।
এদিকে চলতি অর্থবছরে ‘বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন’ (বিপিসি)-এর জন্য কোনো অর্থ বরাদ্দ রাখেনি সরকার। গত অর্থবছরে সংস্থাটির জন্য ৮শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হলেও তা দেওয়া হয়নি। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য কমায় গত এক বছরে বিপিসির মুনাফা প্রায় তিনগুণ বেড়েছে। গত অর্থবছরে বিপিসির মুনাফা প্রাক্কলন করা হয়েছে ১২ হাজার ১৮৬ কোটি টাকা।
অন্যান্যের মধ্যে নগদ ঋণ খাতে চলতি অর্থবছরে অন্যান্য খাতে ৩ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। নতুন গ্যাস কূপ অনুসন্ধানে এ অর্থ ব্যয় করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here