সন্তানরা কোথায় গেল, খোঁজ রাখুন : প্রধানমন্ত্রী

0
4

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অভিভাবকদের প্রতি আমার এটাই অনুরোধ থাকবে, অভিভাবকরা যেন খুঁজে বের করেন তাদের ছেলেমেয়েরা কোথায় গেল। একই সাথে জঙ্গিবাদ নির্মূলে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের যারা সমালোচনা করে পত্রিকায় লেখা-লেখি করছে তাদের সঙ্গে জঙ্গিদের যোগাযোগ আছে কি-না সে বিষয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তিনি অভিভাবকদের প্রতি এ আহ্বান জানান এবং কতিপয় সংবাদপত্রকে সতর্ক করেন। দেশবাসীর মধ্যে জঙ্গিবাদ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এ বিষয়ে সরকারের যা করণীয় তা সরকার করবেই।
প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন বিভাগের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। রোববার ওইসব বিভাগের প্রধানরা তাদের চুক্তিপত্র প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন। এ সময় শেখ হাসিনা সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান।
তিনি বলেন, ধর্মের নামে মানুষ হত্যা করে একটি গোষ্ঠী দেশ ও ইসলামের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাচ্ছে।
শেখ হাসিনা বলেন, তারা ধর্ম রক্ষা করতে যাচ্ছে মানুষ খুন করে। আর খুন (করছে) একই ধর্মের লোক। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের যে ভাবমূর্তি সেটাকে নষ্ট করার একটা চেষ্টা। আজকের পত্রিকায় এ ধরনের কিছু উল্টা-পাল্টা (লেখা) পড়ে দেখলাম। তারা কী উদ্দেশ্যে এটা লিখছে? বা তাদের সাথে এদের কোনো, জঙ্গিদের যোগাযোগ আছে কি-না। এটাও খুঁজতে হবে যে, এদের সাথে জঙ্গিদের যোগাযোগ আছে কি না।
শেখ হাসিনা বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আমরা শুরু করেছি। এগুলো করে কেউ যদি মনে করে এটাও বন্ধ হবে। সেটা কিন্তু বন্ধ হবে না। আমরা বিচারের দিক থেকে অনেক বেশি উদার মনোভাব দেখিয়েছি। যদি এ নিয়ে আরো বেশি বাড়াবাড়ি হয়, তাহলে আমাদের শর্টকাট রাস্তা খুঁজতে হবে। যুদ্ধাপরাধীরা সব চেনা।
শেখ হাসিনা আরো বলেন, আমাদের যেটা দরকার যে প্রত্যেকটা স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটিতে কোথায় কোন ছাত্ররা কতদিন অ্যাবসেন্ট (অনুপস্থিত) তার একটা রিপোর্ট বের করা, তালিকা বের করা এবং নাম, ছবি সেগুলো নিয়ে আসা এবং সেটা প্রকাশ করা। শিক্ষকরা যারা তাদের ভেতরেও কারা আছে যারা এদের বিপথে নিয়ে যাচ্ছে-সেগুলো খুঁজে বের করা উচিত।
ঢাকার গুলশান এবং কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার হামলা ঠেকাতে সরকারের যেসব বাহিনী কাজ করেছে তাদের ধন্যবাদ দেন প্রধানমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here