ঈদ সামনে রেখে সৈয়দপুর রেলকারখানায় চলছে কোচ মেরামতের কর্মযজ্ঞ

0
5

নীলফামারী প্রতিনিধি (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): যাত্রীসেবা নির্বিঘ্ন করতে কোরবানী ঈদেও কর্মযজ্ঞ চলছে নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায়। ঈদ-উল আযহার আগে ও পরে বিভিন্ন রুটে চলাচলের জন্য ৬৫টি কোচ মেরামতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কারখানা শ্রমিক কর্মকর্তারা।
ইতোমধ্যে ৩৪টি কোচ সংস্কার করে পার্বতীপুর, ঈশ্বরদী, খুলনা ও রাজশাহী ট্রাফিক বিভাগে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েনে কারখানা কর্তৃপক্ষ। কারখানা সুত্র জানায়, ৬৫টি কোচের মধ্যে ৩৮টি ব্রডগেজ এবং ২৭টি মিটারগেজ লাইনে চলাচল করবে।
নিরাপদ আর স্বাচ্ছন্দে ভ্রমনের জন্য ট্রেনে দুই ঈদে বাড়তি চাপ থাকে যাত্রীদের। যাত্রী সংখ্যা বাড়ে কয়েকগুন। যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে পুরোনো ও জরাজীণ কোচগুলো মেরামত করে সেগুলো চলাচলের উপযোগী করে তোলে রেলকর্তৃপক্ষ।
কারখানার প্রধান শপের প্রকৌশলী দিলশাদ করিম আবু হেনা জানান, যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে শ্রমিকরা দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। বাড়তি সময় দিয়েও মেরামত কাজে ব্যস্ত থাকছেন তারা। পরিশ্রম হলেও তারা আগ্রহ দেখাচ্ছেন।
সৈয়দপুর রেল কারখানার ওয়াকার্স ম্যানেজার আমিনুল হাসান বলেন, বছর জুড়ে সংস্কার ও মেরামত কাজ চললেও দুই ঈদের আগে ব্যস্ততা বাড়ে কারখানায়। যাত্রীদের সুবিধার জন্য লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী অতিরিক্ত কোচ মেরামত হয়ে থাকে। এবারো এর ব্যতিক্রম নয়। আগামী ২/৪ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ঠ ট্রাফিক বিভাগে মেরামত হওয়া কোচগুলো হস্তান্তর করা হবে বলে জানান আমিনুল হাসান।
এদিকে জনবল কমে যাওয়ায় কারখানাটি নানা ভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছে। দক্ষ শ্রমিকরা অবসরে যাওয়ায় উৎপাদন ব্যাহত হওয়াসহ সরকারী ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। রেলওয়ে শ্রমিকলীগ সৈয়দপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুল মোমিন জানান, কারখানা অনুযায়ী শ্রমিক প্রয়োজন ৩হাজারেরও বেশি কিন্তু দিনে দিনে কমে এখন দাড়িয়েছে ১৩০০জনে। সরকারের এদিনে নজর দেয়া প্রয়োজন।
সৈয়দপুর রেলকারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক নুর হোসেন আহমদ জানান, ঈদ উল আযহায় মেরামত হওয়া কোচগুলো বিভিন্ন রুটে সংযোজন করা ছাড়াও পশ্চিমাঞ্চলের পার্বতীপুর ও খুলনা থেকে ঢাকা রুটে দুটি স্পেশাল ট্রেন চালু করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here