ঋণ নয় ফান্ড দিতে হবে, বিশ্বব্যাংককে টিআইবি

0
6

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে গত ৫ বছরে অনেকটা ইতিবাচক পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। এ জন্য সরকারের ইতিবাচক পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এর পাশাপাশি জলবায়ু তহবিলে বিশ্বব্যাংকে ঋণ নয়, অনুদান দেয়ার দাবি জানানো হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘জলবায়ু ন্যায্যতা সপ্তাহ ২০১৬’ শীর্ষক সমাপনী সংবাদ সম্মেলন ও ‘বাংলাদেশের জলবায়ু ন্যায্যতা ঘোষণা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এ দাবি হয়।
অনুষ্ঠানে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, জলবায়ু তহবিলে বিশ্বব্যাংককে ঋণ নয়, অনুদান দিতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গত চার বছরে আমাদের ১৮ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এটি মোকাবিলায় বাংলাদেশ ৪ নিজস্ব অর্থায়নে ৪০০ মিলিয়ন ডলার দিয়েছে। আর যাদের কারণে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের কাছ থেকে পাওয়া গেছে ১৩০ মিলিয়ন ডলার। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ যথেষ্ট সাহস দেখিয়েছে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীও জলবায়ুর পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছেন।
জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে উন্নয়ন সহযোগীদের কাছ থেকে ঋণের সুদের ব্যাপারে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, শর্ত অনুযায়ী, জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে উন্নয়ন সহযোগীদের কাছ থেকে বিনা সুদে ঋণ পাওয়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু সম্প্রতি বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট এসে ২ বিলিয়ন ঋণ সহযোগিতা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এ ঋণের বিপরীতে সুদ দিতে হবে। এ সুদের অর্থ পরিশোধ করতে হবে জনগণের টাকায়। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বাংলাদেশ। ইফতেখারুজ্জামান বলেন, শিল্পোন্নত দেশগুলোর দূষণের শিকার বাংলাদেশ। ২২তম জলবায়ু সম্মেলনে (কপ-২২) বাংলাদেশের ক্ষতির বিষয়টি তুলে ধরতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন জাতীয় জলবায়ু কর্তৃপক্ষ গঠনের পরামর্শ দেন উপকূলীয় জীবনযাত্রা ও পরিবেশ কর্ম জোটের (ক্লিন) প্রধান নির্বাহী হাসান মেহেদী। তিনি আরও বলেন, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সবুজ জলবায়ু তহবিল এ প্রতি বছর ১০ হাজার কোটি ডলার প্রদান নিশ্চিত করতে উন্নয়ন সহযোগীদের প্রতি চাপ সৃষ্টি করা উচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here