দুর্গাপূজায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে-ডিএমপি

0
3

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে শুক্রবার (০৭ অক্টোবর) শুরু হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। দুর্গাপূজা উপলক্ষে গোয়েন্দা প্রতিবেদন ও বাস্তবতার প্রেক্ষিতে কয়েকস্তরের সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা সাজানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

ঢাকেশ্বরী মন্দির পরিদর্শন শেষে বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের তিনি জানান,পূজায় জঙ্গি হামলা বা নিরাপত্তা নিয়ে কোনও হুমকি নেই। পূজায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগরীতে ২২৬টি পূজামণ্ডপ থাকবে। নিরাপত্তার জন্য ‘এ’ ক্যাটগরিতে ঢাকেশ্বরী, রামকৃষ্ণ, ধানমন্ডি ও বনানী এবং ‘বি’ ক্যাটাগরিতে রমনার কালিমন্দির ও সিদ্ধেশ্বরী মন্দির। এর মধ্যে ৮৮টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ, ৮৩টি তুলনামূলক কম গুরুত্বপূর্ণ এবং ৪৮টি মন্দিরকে সাধারণ ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে।

নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রত্যেক পূজামণ্ডপে স্বেচ্ছাসেবকদের সঙ্গে সমন্বয় করে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ, র‌্যাবসহ গোয়েন্দা সংস্থার লোক কাজ করবে বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।

নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিটি পূজামণ্ডপ সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। পূজামণ্ডপের ভেতরে ব্যাগ, ছুরি, কাঁচি বা দাহ্য পদার্থ নিয়ে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পুলিশ।

পূজামণ্ডপগুলো সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করতে রমনা ও ঢাকেশ্বরীতে দুটি অস্থায়ী ক্যাম্প বসানো হয়েছে।

প্রতিটি পূজামণ্ডপে প্রত্যেককে মেটাল আর্চওয়ে দিয়ে প্রবেশ করা হবে। প্রয়োজনে সবাইকে তল্লাশি করা হবে বলেও জানান আছাদুজ্জামান মিয়া।
প্রতিমা বিসর্জন দিতে যাওয়ার সময় কোনও ধরনের বাদ্যযন্ত্র বহন না করতে অনুরোধ করে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বিসর্জনের শোভাযাত্রার পুরো রাস্তা নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হবে। শোভাযাত্রার সামনে, পেছনে ও মাঝে পর্যাপ্ত পরিমাণ আইনশৃঙ্খলাবাহিনী দায়িত্ব পালন করবে।’

শুক্রবার সকালে দেবীর বোধনের মাধ্যমেআনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে দুর্গোৎসব।১১ অক্টোবর দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ উৎসব। সারাদেশে এবার ২৯ হাজার ৩৯৫টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গত বছর ২৯ হাজার ৭১টি মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদেরর নেতৃবৃন্দ জানান, ধর্ম যার যার উৎসব সবার- এ চেতনার বিকাশের মধ্য দিয়েই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। সারাদেশে উৎসবের আঙ্গিকে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিরোধ করার আহ্বান জানান তারা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here