যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানদের মুক্তির দাবি এইচআরডব্লিউ’র

0
10

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ) : বাংলাদেশে মানবতাবিরোধী অপরাধে শাস্তি পাওয়া জামায়াতে ইসলামী ও বিএনপির তিনজন নেতার সন্তানদের সরকারি বাহিনী আটক করেছে দাবি করে, তাদের মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, গত আগস্টে এই তিনজনকে আটক করার অভিযোগ উঠলেও তাদের সরকারি হেফাজতে থাকার বিষয়ে অস্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ।
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়, মানবতাবিরোধী অপরাধে বিচার হওয়া তিনজন বিরোধী নেতার ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী, মির আহমাদ বিন কাশেম এবং আমান আযমীকে গ্রেফতারি পরোয়ানা এবং সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়াই আটক করা হয়েছে। তাদের আইন মোতাবেক ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে হাজির করা হয়নি এবং তাদের পরিবারের কিংবা আইনজীবীদের সাথে যোগাযোগের ব্যবস্থাও করা হয়নি।
বিবিসির খবরে বলা হয়, যদিও নির্ভরযোগ্য প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষ তাদের আটক করেছে, তবে সরকার তাদের হেফাজতে এই তিনজনের থাকার বিষয়টি নাকচ করে আসছে।
হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বিবৃতিতে দাবি করেছে, ২০১৬ সালের অাগস্ট থেকে এই তিনজন নিখোঁজ এবং বেআইনিভাবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক আছেন।
এইচআরডব্লিউ বলছে, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নামে বিরোধী এবং সমালোচকদের বারবার এভাবে হয়রানির বিরুদ্ধে দাতা এবং সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রমের অন্যান্য অংশীদারের কথা বলতে হবে।
সংস্থাটির এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক ব্রাড অ্যাডামস বলেন, ‘বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর রাজনৈতিক হয়রানিমূলকভাবে গ্রেফতার ও গুম করার দীর্ঘদিনের ইতিহাস রয়েছে এবং লোকজনকে আটকের পর তা নাকচ করার ঘটনাও রয়েছে। অনেকক্ষেত্রে আটক ব্যক্তির নির্যাতনের এমনকি মৃত্যুর ঘটনাও রয়েছে। সরকারের উচিত দ্রুত এই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা অথবা তাদের মুক্তি দেয়া। সেইসাথে গুম এবং বেআইনি গ্রেফতার বন্ধ করা দরকার।’
এই তিনজনের মধ্যে হুম্মাম কাদের চৌধুরী সরাসরি রাজনীতিতে জড়িত, বিন কাশেম একজন আইনজীবী এবং আযমী একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here