তিন ‘অভিভাবক’ চিকিৎসকের মৃত্যু : শোকাহত চিকিৎসক সমাজ

0
6

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): দেশের চিকিৎসক সমাজ একই দিনে (শনিবার) তিন প্রবীণ ‘অভিভাবক’ চিকিৎসককে হারালো। তারা হলেন শিশুবন্ধুখ্যাত জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম আর খান, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএর) দুবারের সভাপতি ও ঢাকা মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আবুল কাশেম এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) ও সাবেক আইপিজিএমআর-এর প্যাথলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আনোয়ারুল আজিম। প্রবীণ এই তিন চিকিৎসকের মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান গোটা চিকিৎসক সমাজ।

প্রকৃতির স্বাভাবিক নিয়মেই পৃথিবী থেকে একদিন সবাইকেই চিরবিদায় গ্রহণ করতে হবে। ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে সবাকেই মৃত্যুর কাছে একদিন পরাজিত হতেই হয়। বেঁচে থাকার সময় কিছু কিছু মানুষ নিজ কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে মহান হয়ে ওঠেন। যাদের মৃত্যুতে শুধু পরিবার-পরিজন নয়, গোটা রাষ্ট্রেই শোকের মাতম চলে।

অধ্যাপক ডা. এম আর খান। শিশুবন্ধু হিসেবে সুপরিচিত এই চিকিৎসক ছিলেন রাজনীতির ঊর্ধ্বে। আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ দেশের সব রাজনৈতিক দল ও মতের মানুষের কাছে তিনি ছিলেন পরম শ্রদ্ধেয়। শিশুচিকিৎসায় সারাজীবন কাটিয়ে দিয়েছেন তিনি। তার হাতের ছোঁয়ায় বহু জটিল রোগে আক্রান্ত শিশুর সুস্থ হয়ে ওঠার অসংখ্য উদাহরণ রয়েছে।

বিএমএর দুই দুইবারের সাবেক সভাপতি ও ঢামেকের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আবুল কাশেমও ছিলেন বর্তমানে দেশের বহু নামিদামি চিকিৎসক নেতা ও চিকিৎসকদের ‘অভিভাবক’ এর মতো। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন বিএমএ সভাপতি ডা. মাহমুদ হাসান ও মহাসচিব ডা. এম. ইকবাল আর্সলান। শনিবার বিকেলে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ৯৫ বছর।

বর্ণাঢ্য জীবনের অধিকারী দেশের সবচেয়ে প্রবীণ চিকিৎসক ডা. আবুল কাশেম বিএমএর দুইবারের নির্বাচিত সভাপতি, ঢাকা মেডিকেল কলেজের অ্যানাটমি বিভাগের অধ্যাপক ও অধ্যক্ষ এবং বাংলাদেশ অ্যানাটমি সোসাইটির সভাপতি ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি দুই কন্যা-এক পুত্র পরিবার পরিজনসহ অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী, গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার দুই কন্যা ও জামাতা চিকিৎসক, একমাত্র পুত্র প্রকৌশলী, বর্তমানে নর্থ ক্যারোলিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

অধ্যাপক ডা. আনোরুল আজিমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিএসএমএমইউ ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। একই সঙ্গে বিএমএ সভাপতি ও মহাসচিব এবং বিএসএমএমইউ ভিসি অধ্যাপক ডা. এম আর খানের মৃত্যুতেও গভীর শোক প্রকাশ করেন।

এম আর খানের নামাজে জানাজা আগামীকাল বেলা ১১টায় বিএসএমএমইউ জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। অধ্যাপক আবুল কাশেমের নামাজে জানাজা সকাল ৯টায় ঢামেকে অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here