সৈয়দপুরে উপ-নির্বানের সরকার দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘণের অভিযোগ

0
4

এসএপ্রিন্স নীলফামারী (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): উৎসব মুখর পরিবেশে চলছে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বানের প্রচার প্রচারণা। সকাল থেকে শুরু করে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে নির্বাচনী আমেজ। গ্রাম কিংবা শহরের ক্লাব, সংগঠন আর চা’য়ের দোকানে আলাপ আলোচনা চলছে নির্বাচন ঘিরে। আগামী ১৬মে মঙ্গলবার নির্বাচন অনুষ্টিত হবে।
আওয়ামীলীগের পাশাপাশি বিএনপি, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন এবং স্বতন্ত্র হিসেবে জামায়াতের প্রার্থী অংশগ্রহণ করায় নির্বাচনে বিশেষ আবহ তৈরি হয়েছে নেতা কর্মীদের মাঝে।
ইতোমধ্যে প্রার্থীর হয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু।
সরকার দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন বিএনপি প্রার্থী। শহর-বন্দর কিংবা গ্রাম গঞ্জে সাটানো হয়েছে পোস্টার। বিতরণ করা হচ্ছে লিফলেট। তবে ভোট নিয়ে আক্ষেপ রয়েছে গ্রামের ভোটারদের। কাশিরাম বেলুপুকুর ইউনিয়নের বাগাচিপাড়া গ্রামের কফিল উদ্দিন(৭০) অভিযোগ করে বলেন, ভোটের সময় অনুনয় বিনয় করে ভোট নিয়ে গেলেও আর দেখা পাওয়া যায় না বিজয়ী প্রার্থীর। এমনকি খোঁজও নেন না কে কেমন আছেন। আরেক বৃদ্ধা ফজিলাতুন নেছা বলেন, এ্যালা সবারে দেখা পাওয়া যায়ছে, ভোট শ্যাষ হউক, কাখো পাওয়া যাইবে না। হামার জন্য কায় কি করিবে, বোঝা হইছে।
সরেজমিনে ঘুরে বোতলাগাড়ি, কাশিরাম বেলপুকুর ও সৈয়দপুর শহর ঘুরে দেখা গেছে নির্বাচনী আমেজের। দলীয় কার্যালয় ছাড়াও নির্বাচনী ক্যাম্প করা হয়েছে স্ব স্ব প্রার্থীদের পক্ষে।
জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইলিয়াস হোসেন ভুলু জানান, এখন পর্যন্ত প্রচার প্রচারণায় কোন সমস্যা তৈরি হয়নি। এরকম পরিবেশ বজায় থাকলে ভোট ভালো হবে। তবে গ্রাম গঞ্জে নৌকার কিছু লোকজন নানাভাবে কটুক্তি করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। আগামী ১৬মে’র নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভাবে আয়োজনে প্রশাসনের কঠোর নজরদারী চান তিনি।
এছাড়া বিএনপির প্রার্থী শওকত হায়াত শাহ, সরকারী দলীয় আওয়ামীলীগের প্রার্থী মোখছেদুল মোমিনের বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে বলেন, নির্ধারিত সময়ের পরও প্রচারণা চালাচ্ছেন তিনি। এ বিষয়ে অভিযোগ করা হলেও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি হিসেবে তিনি, নির্বাচিত হলে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, দখলবাজ মুক্ত উপজেলা উপহার দিতে চান এছাড়া গণমানুষের অফিস হিসেবে উপজেলা পরিষদকে ব্যবহারের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তিনি।
তবে আচরণ বিধি লঙ্ঘণের অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মোখছেুল মোমিন জানান, পরাজয় জেনে বিভিন্ন অভিযোগ তুলছেন বিএনপি প্রার্থী। বিএনপির অভিযোগ করা পুরোনো অভ্যাস মন্তব্য করে তিনি বলেন, নির্বাচনের দিন ভোটারগণ নৌকা প্রার্থীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন।
নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি হিসেবে তিনি, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে এলাকার জন্য প্রয়োজনীয় কাজ আদায় করে মানুষকে উপহার দিতে চান।
নির্বাচনী পরিবেশ স্বাভাবিক রয়েছে জানিয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রবিউল আলম জানান, কেউ যদি আচরণ বিভি ভঙ্গ করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মাঠে মোবাইল কোর্ট কাজ করছে।
সবার সহযোগীতায় ১৬মে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর ভোট উপহার দেয়া যাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্র জানায়, নির্বাচনে ৫জন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এদের মধ্যে আওয়ামীলীগের মোখছেদুল মোমিন, বিএনপির শওকত হায়াত শাহ, জাতীয় পার্টির ইলিয়াস হোসেন ভুলু, ইসলামী আন্দোলনের নুরুল হুদা এবং স্বতন্ত্র হয়ে জামায়াতের আব্দুল মুনতাকিম।
৫টি ইউনিয়ন পরিষদ ও ১টি পৌরসভা নিয়ে সৈয়দপুর উপজেলায় ভোটার সংখ্যা ১লাখ ৮১হাজার ৫০৭জন। এরমধ্যে পুরুষ রয়েছেন ৯১হাজার ৭২ এবং নারী ভোটার রয়েছেন ৯০হাজার ৪৩৫জন।
রিটার্নিং অফিসার জিলহাজ উদ্দিন জানান, ৭১টি ভোট কেন্দ্রের ৪৪০টি ভোট কক্ষে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন উপজেলার ভোটারগণ। তিনি জানান, ১লা মার্চ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাওয়াদুল হক সরকার মুত্যুবরণ করায় চেয়ারম্যান পদটি শুণ্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here