জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কৃষি মন্ত্রণালয়ের আলোচনা সভা

0
15

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৭ আগস্ট বিকালে রাজধানীর ফার্মগেট খামারবাড়িস্থ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মো. কামরুল ইসলাম এমপি। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মঈন উদ্দীন আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মো. গোলাম মারুফ, কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ) মো. মোশারফ হোসেন প্রমুখ।
আলোচনা সভায় বক্তারা জাতির জনকের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনাদর্শ ও ১৫ আগস্ট কালো রাতে তাঁর পরিবারের সকল সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের কার্যকলাপ এবং ইতিহাস বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেন। বক্তারা বলেন, জাতি সব সময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গর্ব বোধ করেন। ১৫ আগস্টের শোককে আমরা শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলব। জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এবং উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে ইতোমধ্যে বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমরা আরও সন্মুখে এগিয়ে যাব আমাদের অভীষ্ট লক্ষমাত্রা অর্জনে।
বক্তারা আরো বলেন, হিমালয় সমান জনপ্রিয় এ মানুষটি দেশে বিদেশে অসীম জনপ্রিয় ছিলেন। কিন্তু এ দেশের কিছু কুলাঙ্গার পথভ্রষ্ট বিপদগামী মানুষ জাতির এ মহান মানুষটিকে নৃশংশভাবে হত্যা করেই থেমে থাকেনি, তাদের দোশররা আজও দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্ট করছেন বিভিন্ন অপচেষ্টার মাধ্যমে। এজন্য আমাদের সবাইকে সচেতন থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। ভিশন ২০২১ এবং ২০৪১ এ দেশকে আরও সমৃদ্ধশালী করতে আমাদের সবাইকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নীতি অনুসরণ করে এগোতে হবে। তবেই আমরা আমাদের কাক্সিক্ষত স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবো বিশ্ব দরবারে। অনুষ্ঠানে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যসহ সব শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয়াধীন বিভিন্ন সংস্থার প্রধান, বিজ্ঞানী, বিশেষজ্ঞ, কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা অংশ্রগ্রহণ করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here