না’গঞ্জে জামায়াতের ১৩ নেতা-কর্মী আটক

0
6

স্টাফ রিপোর্টার :  জেলার সাবেক সভাপতি ও বর্তমান মহানগর জামায়াত ইসলামের সভাপতি মাওলানা মাঈনুদ্দিন আহমেদের বাড়িটি ফতুল্লার হাজীগঞ্জ এলাকার বড় মসজিদের গলির ভেতর। প্রবেশ পথ একটি আর বের হওয়ার পথ তিনটি। ঘরের প্রথম দরজায় কাগজে লিখা খাটি মধু ২৫০ টাকায় বিক্রি করা হয়। আর ভেতরে চলতো সরকার বিরোধী দলীয় গোপন বৈঠক।

দীর্ঘদিন ধরেই এমন কৌশলে জামায়াত ইসলামের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে গোপন বৈঠক করতেন মাঈনুদ্দিন আহমেদ। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার বেলা ১১টায় ৩ ঘণ্টা ফতুল্লার হাজীগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত মাঈনুদ্দিন আহমেদের ওই বাড়িতে পুলিশ জটিকা অভিযান চালায়। এ সময় মাঈনুদ্দিনসহ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের শীর্ষ ১৩ নেতাকে আটক করে পুলিশ। এরপর ওই বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমানের জিহাদী বই, লিফলেট, সদস্য সংগ্রহের ফরম, বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ব্যানার জব্দ করা হয়। দুপুর ২টা পর্যন্ত চলে এ অভিযান।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলার সাবেক সভাপতি ও বর্তমান মহানগর জামায়াত ইসলামের সভাপতি মাওলানা মাইনুদ্দিন আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আ. কাইয়ুম, সাইফুদ্দিন মনির, সাহাবুদ্দিন, বশিরুল হক, এসএম নাসির উদ্দিন, সাইদ তালুকদার, জাহাঙ্গীর দেওয়ান, জামাল উদ্দিন, কফিল উদ্দিন, জাকির হোসেন, জাকির হোসেন-২, শহিদ মিয়া।

গ্রেফতারকৃতরা জানান, দলীয় কোনো কার্যক্রম নয়, ধর্মীয় বিষয়ের একটি ক্লাস চলছিল।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানান, আমাদের কাছে একটি সংবাদ আসে নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলার জামায়াতের শীর্ষ নেতারা নাশকতা চালিয়ে মাঈনুদ্দিন আহমেদের ওই বাড়িতে আশ্রয় নেয়। দলীয় নেতাকর্মীদের আশ্রয় দেয়ার জন্য দু’তলা বাড়ির দু’তলায় তিনটি কক্ষ রয়েছে। সেখানে থাকা খাওয়াসহ সকল ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে। অভিযানের সময় ওই তিনটি কক্ষের ভেতরে জিহাদী বই, লিফলেট, সদস্য সংগ্রহের ফরম, বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ব্যানারসহ ফটো কপি করার মেশিন, ইন্টারনেটের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন দুইটি সংযোগ ও একাধিক কম্বল পাওয়া গেছে।

ওসি আরো জানান, তিনটি কক্ষ থেকে বাহিরে বের হওয়ার জন্য বিভিন্ন স্থান দিয়ে তিনটি পথ রয়েছে। ওই বাড়ির পরিবেশ দেখে ধারনা করা যায় মাঈনুদ্দিন আহমেদের কাছে জামায়াত ইসলামের অনেক শীর্ষ নেতারা আসা যাওয়া করত। এছাড়া ছাত্র শিবিরের নেতাকর্মীদেরও এখান থেকে নাশকতার প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। আর এ আড়ি থেকেই নাশকতার পরিকল্পনা করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাঈনুদ্দিন আহমেদের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। পরিদর্শক (অপারেশন) মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে এসআই শাফিউল আলম, এসআই রাজু মণ্ডলসহ পুলিশের ৩টি টিম এ অভিযানে অংশ নেয় বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here