‘আ.লীগ নেতারা আগে থেকেই রায় জানেন’

0
5

ঢাকা (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ): বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আসামি করে দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার রায় কী হবে, তা আওয়ামী লীগ নেতারা আগে থেকেই জানেন বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতারা আগে থেকেই হুমকি দিচ্ছেন— রায় নিয়ে বিশৃঙ্খলা তৈরি করলে দমন করা হবে। তারা আগে থেকে রায় জানেন বলেই এমন বলছেন। কারণ এর আগেও অনেক নেতা বলছেন, ১৫ দিনের মধ্যে রায় হয়ে যাবে। তাদের কথামতোই রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখার জন্যই তড়িঘড়ি করে রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।’

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘মিথ্যা দুর্নীতির মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আমাদের বিজ্ঞ আইনজীবীরা যুক্তি দিয়ে আদালতে দেখিয়েছেন, এটা মিথ্যা মামলা। আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাল নথি উপস্থাপন করেছে প্রসিকিউশন। আমাদের আইনজীবীদের পুরো কথা কেউ শোনেনি। তাদের কথা বলার সুযোগ দেওয়া হয়নি। তড়িঘড়ি করে নজিরবিহীনভাবে এই মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।’

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘দেশে একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েম করার জন্য এই রায় দেওয়া হবে।’ আওয়ামী লীগের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনাদের এই আচরণের জন্য জাতি কোনোদিন আপনাদের ক্ষমা করবে না।’

সারাদেশে নেতাকর্মীদের ওপর অত্যাচার করা হচ্ছে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সারাদেশে গত একমাসেই সাড়ে ১২ হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ছাত্রদল, যুবদল ও বিএনপির অনেক গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রীয় নেতা আছেন এর মধ্যে। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর সুপরিকল্পিতভাবে দমন-পীড়ন চলছেই। আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৫০ হাজারের ওপর মামলা দেওয়া হয়েছে। চেয়ারপারসন থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রত্যকের নামে অন্তত ১০টি করে মামলা আছে।’

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘কোনও নির্বাচনের মাধ্যমে আজকের এই সংসদ গঠিত হয়নি। একটি গৃহপালিত দলকে বিরোধী দল বানিয়ে রাখা হয়েছে। মিথ্যার ওপর আওয়ামী লীগ টিকে আছে। বাংলাদেশের মানুষ কোনোদিন এই স্বৈরাচার সরকারকে ক্ষমা করবে না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here