1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন

থানায় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য থাকবে লাল চেয়ার

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৭৪

এখন থেকে কিশোরগঞ্জ জেলার প্রতিটি থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) কক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্যে একটি বিশেষ চেয়ার থাকবে। ওই চেয়ারটি হবে লাল রঙের। যেকোনো প্রয়োজনে থানায় সেবা নিতে আসা মুক্তিযোদ্ধারা ওই চেয়ারে বসবেন। ওই চেয়ারে বসিয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধাদের প্রয়োজনীয় সেবা দেবেন। তাদের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে চা-নাস্তার ব্যবস্থা করা হবে।

এমনটিই ঘোষণা দিলেন কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান বিপিএম (বার)। সোমবার বিকলে মহান বিজয় উপলক্ষে জেলা পুলিশ লাইনসে পুলিশ বিভাগে কর্মরত ও সাবেক মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ এ ঘোষণা দেন।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শেষ্ঠ সন্তান। তাদের বিরোচিত অবদানের জন্যেই আমরা পেয়েছি লাল-সবুজের গর্বিত পতাকা। তাই আমরা রাষ্ট্রের যত বড় কর্মকর্তাই হই না কেন, তাদের ত্যাগের কাছে এটা কিছুই না। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানের মাধ্যমেই আমাদের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে। এজন্যই এখন থেকে অফিসার ইনচার্জের (ওসি) কক্ষে তাদের জন্য একটি বিশেষ লাল চেয়ার সংরক্ষিত থাকবে।’

পুলিশ সুপারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সিআইডির এডিশনাল ডিআইজি আব্দুল কাহার আকন্দ, পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাজমুল ইসলাম সোপান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মো. মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মাসুদ আনোয়ার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) অনির্বাণ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে জেলার ৩৪ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার হাতে সম্মাননা ও উপহার তুলে দেন পুলিশ সুপার।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ সম্মান জানানোর জন্যই এটি করা হচ্ছে। জেলার ১৩টি থানায় অফিসার ইনচার্জদের (ওসি) কক্ষে তাদের জন্য একটি করে বিশেষ চেয়ার রাখা হবে। লাল রঙের এ চেয়ারটি সংরক্ষিত থাকবে শুধু বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য। কোনো মুক্তিযোদ্ধা থানায় সেবা নিতে গেলে ওই চেয়ারে বসবেন। বাকি সময় চেয়ারটি ঢেকে রাখা হবে। অন্য কাউকে এ চেয়ারে বসতে দেয়া হবে না।’

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart