1. admin@bangla24bdnews.com : b24bdnews :
  2. robinmzamin@gmail.com : mehrab hossain provat : mehrab hossain provat
  3. maualh4013@gmail.com : md aual hosen : Md. Aual Hosen
  4. tanvirahmedtonmoy1987@gmail.com : shuvo khan : shuvo khan
রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন

বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর কলেজকে ৫০ লাখ টাকা অনুদান দিল বিমান বাহিনী

স্টাফ রিপোর্টার (বাংলা ২৪ বিডি নিউজ):
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৯৩

বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের নামে প্রতিষ্ঠিত ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর কলেজ’ এর উন্নয়নে ৫০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী। মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (প্রশাসন) এয়ার ভাইস মার্শাল এ কে এম আহ্সানুল হক কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে অনুদানের এ চেক হস্তান্তর করেন। চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বিমান বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কলেজ কর্তৃপক্ষ ছাড়াও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান আত্মত্যাগের মাধ্যমে দেশ প্রেমের যে উদাহরণ রেখে গেছেন, তার নামানুসারে স্থাপিত ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর কলেজ’ শুধুমাত্র দেশে শিক্ষার প্রসারই নয়, মুক্তিযুদ্ধ ও দেশপ্রেমের চেতনায় ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদাত্ত আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলার আপামর জনগণের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বিমান বাহিনীর যে সকল সদস্য মহান মুক্তি সংগ্রামে অংশগ্রহণ করেছিলেন তাদের মধ্যে বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের অবদান অনস্বীকার্য।

বাঙালিদের ওপর পাকিস্তানিদের বৈষম্যমূলক আচরণ ও অমানবিক অত্যাচারের তীব্র প্রতিবাদ এবং গভীর দেশপ্রেম বৈমানিক ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমানকে পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে উদ্বুদ্ধ করে। পেশাগত কারণে স্ব-পরিবারে পশ্চিম পাকিস্তানে অবস্থান করলেও দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে পরিবারের ওপর নিশ্চিত বিপদ জেনেও স্ত্রী ও কন্যাকে পাকিস্তানে রেখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার পরিকল্পনা করেন।সে লক্ষ্যেই তিনি পাকিস্তান বিমান বাহিনীর একটি টি-৩৩ বিমান ছিনতাইয়ে পরিকল্পনা করেন।

পাকিস্তানের করাচিস্থ মাসরুর বিমান ঘাঁটি থেকে বিমানটি যখন উড্ডয়ন করে তখন বিমানটি চালাচ্ছিলেন তারই ছাত্র পাইলট মিনহাজ রশিদ। মতিউর রহমান পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বিমানটি ছিনতাইয়ের লক্ষ্যে থামানোর নির্দেশ দিলে পাইলট মিনহাজ রশিদ বিমান থামান। পরে মতিউর রহমান তার মুখে ক্লোরোফর্ম জাতীয় কিছু চেপে ধরে তাকে অজ্ঞান করেন এবং বিমানের নিয়ন্ত্রণ নিজের কাছে নিয়ে নেন।

বিমানটি ছিনতাই করে আনার পথে পাইলট মিনহাজ রশিদের জ্ঞান ফিরলে মতিউর রহমানের সাথে তার ধস্তাধস্তি হয় এবং ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে ২০ আগস্ট ভারতীয় সীমান্তের কাছাকাছি থাট্টা নামক স্থানে জাতির এ সূর্য সন্তান বিমান দুর্ঘটনায় শাহাদাতবরণ করেন।

পরবর্তীতে মতিউর রহমানের মরদেহ পাকিস্তানের করাচিস্থ মাসরুর বিমান ঘাঁটির ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারীদের কবরস্থানে সমাহিত করা হয়। এরপর ২০০৬ সালের ২৪ জুন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সার্বিক সহযোগীতায় বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের পরিবার এবং তৎকালীন সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় তার দেহাবশেষ দেশে ফেরত আনা হয় এবং পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির এ গর্বিত সন্তানের জন্মস্থান নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলাধীন রামনগর গ্রামকে ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর’ নামকরণ করেন। এছাড়া ওই এলাকার শিক্ষা প্রসারে ২০০৯ সালের ৬ জুলাই ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর কলেজ’ নামে কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়।

ফেসবুকে আমরা

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.bangla24bdnews.com কর্তৃক সংরক্ষিত
Customized By NewsSmart